ইউরোপিয়ান সুপার লিগ নিয়ে মুখ খুললেন ফিফা প্রধান

ইউরোপিয়ান সুপার লিগের (ইএসএল) ঘোষণা আসার পর তোলপাড় ফুটবল বিশ্বে। আঞ্চলিক ফুটবল সংস্থা থেকে সমর্থকরা পর্যন্ত এর বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। এবার ইস্যুটি নিয়ে কথা বললেন ফিফা প্রেসিডেন্ট জিয়ান্নি ইনফান্তিনো। তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন যারা নতুন এই টুর্নামেন্ট নিয়ে হাজির হচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ইউরোপের প্রভাবশালী ১২টি দলকে উদ্দেশ্যে ফুটবলের অভিভাবক সংস্থার প্রধান বলেছেন, ‘অর্ধেক ভেতরে আর অর্ধেক বাইরে থাকবে এমটা হতে পারে না।’

ইংল্যান্ডের আর্সেনাল, লিভারপুল, ম্যানচেস্টার সিটি, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও টটেনহ্যাম সুপার লিগে যোগ দিয়েছে। স্পেনের থেকে অংশ নিয়েছে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ, রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনা। এছাড়া ইন্টার মিলান, এসি মিলান ও জুভেন্টাস রয়েছে এই টুর্নামেন্টে।

ম্যানচেস্টার ইভেনিং স্ট্যান্ডার্ডে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে ইনফান্তিনো বলেছেন, ‘ফিফায় আমরা শুধু এই সুপার লিগ তৈরির বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিতে পারি, এটা একটা বন্ধ দোকান। বর্তমান পরিস্থিতি, বিভিন্ন লিগ, অ্যাসোসিয়েশন, উয়েফা ও ফিফার কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার চেষ্টা।’

ইউরোপিয়ান সুপার লিগের চেয়ারম্যান ও রিয়াল মাদ্রিদের সভাপতি ফ্লোরেন্টিনো পেরেজের মতে, বড় দলগুলো দিনের পর দিন অর্থ সঙ্কটে পড়ছে। যদি নিয়মিত বড় ম্যাচ আয়োজন হয় তাহলে মুনাফাও বাড়তে থাকবে। এতে সব পক্ষ লাভবান হবে।

অন্যদিকে ইনফান্তিনো বলছেন, ‘হয়তো কিছু সময়ের জন্য একটি গোষ্ঠী আর্থিক লাভবান হতে পারে। এজন্য সবাইকে খুবই সতর্কতার সঙ্গে ভাবতে হবে। তাদের নিজেদের দিকে তাকাতে এবং দায়িত্ব নিতে হবে। যদি কেউ তার নিজস্ব পথে চলে, তাহলে তাদের সিদ্ধান্তের পরিণতি নিয়েই বেঁচে থাকতে হবে।’

ফিফার প্রধান হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘তাদের পরিণতির জন্য তারাই দায়ী থাকবে। স্পষ্ট করে বলেছি, এর মানে হলো, হয় থাকো না হয় একবারে বের হয়ে যাও। অর্ধেক ভেতরে থাকবে আর অর্ধেক বাইরে থাকবেন এমটা হবে না।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *