জনপ্রতিনিধিদের সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আতিকের আহ্বান

‘আমি যখন করোনা আক্রান্ত হয়েছিলাম তখন কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছি। এমন চিকিৎসা আমি কোথাও পাইনি। আমি বলতে চাই, সরকার যে হাসপাতাল তৈরি করেছে সেগুলোতে জনপ্রতিনিধিরা যাতে সেখানে যান। জনপ্রতিনিধিরা ওই হাসপাতালে গেলে ডাক্তার, নার্স ও কর্মরত সবাই অনেক খুশি হয়। কথাগুলো বলছিলেন, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম।

রোববার দুপুরে রাজধানীর মহাখালীতে ডিএনসিসি করোনা হাসপাতাল উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এই সব কথা বলেন তিনি।

উত্তর সিটি করপোরেশন আইসোলেশন সেন্টার চালুর ‍উদ্যোগ নিয়েছিল সেখানেই প্রাথমিকভাবে ২৫০ বেড দিয়ে রোগী ভর্তির কার্যক্রম শুরু হবে এদিন থেকে।

গেল বছর অক্টোবরে করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন মেয়র আতিক। একই সময়ে ডিএনসিসির বেশ কয়েকজন কর্মকর্তাও আক্রান্ত হয়েছিলেন

করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নেয়ার অভিজ্ঞতা তুলে ধরতে গিয়ে আতিক বলেন, ‘কুর্মিটোলা হাসপাতালে যেতে চাইলাম। তখন হাসপাতালের ডিজি বিগ্রেডিয়ার জামিল আমাকে জিজ্ঞাসা করলেন যেতে চাই কি না। আমি বললাম অন্যরা চিকিৎসা নিলে আমি কেনো যাবো না? আপনারা জেনে খুশী হবেন, আমরা ২১ জন ভর্তি হয়েছিলাম। আল্লহর রহমতে সরকারী হাসপাতাল থেকেই সুস্থতা পেয়েছি।’

সশস্ত্র বাহিনী পরিচালনায় ডিএনসিসির নতুন হাসপাতালে ৫০ বেডের আইসিইউ, ৫০ বেডের জরুরি সেবা (মেডিসিন), ১৫০টি কোভিড-নাইন্টিন আইসোলেটেড রুম দিয়ে যাত্রা শুরু করা হলো। পর্যায়ক্রমে এপ্রিল মাসের শেষ নাগাদ হাসপাতালটি পুরো চালুর পরিকল্পনা রয়েছে।

সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ার আহ্বান জানিয়ে আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমার বিশ্বাস এই হাসপাতালগুলোতে যারা আসবেন তারাও সমপরিমাণ, স্বল্পমূল্যে ও সেরা চিকিৎসা পাবেন।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *