মুখ খুললেন পরিচালক শ্রীলেখা

মুখ খুললেন অভিনেত্রী-পরিচালক শ্রীলেখা মিত্র। ভালোবাসা দিবসের দিন ‘বিটার হাফ’ ছবির পোস্টার রিলিজ হয়েছে। এই ছবি দিয়েই পরিচালক হিসাবে যাত্রা শুরু করলেন অভিনেত্রী। কেন ছবির নাম বিটার হাফ? পরিচালক শ্রীলেখা জানালেন সেই কথা। তিনি বলেন, ঢাকঢোল পিটিয়ে যে ভালবাসা দেখানো হয়, অনেক সময়ই পর্দার আড়ালে তার অন্য রূপটা ধরা পড়ে। বেটার-হাফ কখন হয়ে যায় ‘বিটার হাফ’, কীভাবে মারা যায় ভালোবাসার সততা, সেটাই শ্রীলেখা তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন তার প্রথম ছবিতে। অভিনেত্রী জানিয়েছেন, ক্যামেরার সামনে অভিনয় করলেও তিনি বরাবরই ক্যামেরার পিছনের মানুষদের শ্রদ্ধা করে এসেছেন। তাদের কাছ থেকে অনেক কাজ শিখেছেন।

তাই যখন তিনি ক্যামেরার পিছনে গিয়েছেন, সেই অভিজ্ঞতাগুলোকেই কাজে লাগিয়েছেন। তার কথায়, খবরদারি, বাজে ব্যবহার নয়, অভিনেতা, অভিনেত্রীদের সহমর্মিতা ও ভালবাসা দিয়ে কাজ করানো উচিত। কাজে ভুল হলে ছোটদের আদর করে বকা উচিত। ‘বিটার-হাফ’ এ ভরত কল, চান্দ্রি মুখোপাধ্যায় ছাড়াও ছবিতে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন শ্রীলেখাও। জানিয়েছেন, অভিনয় করতে গিয়ে বেশ অসুবিধায় পড়েছিলেন। কারণ হিসাবে বলেছেন, পরিচালনার পাশাপাশি তাকে নজর রাখতে হয়েছে প্রোডাকশনের অনান্য কাজেও। অল্প বাজেট হওয়ায় ছোট্ট টিম নিয়ে পরিবারের মতো কাজ করেছেন। তাই বড় দিদির মতো সব বিষয়ের খেয়াল রাখতে গিয়ে অভিনয়ে মন দিতে একটু অসুবিধা হয়েছিল। তাই নিজের অভিনয় নিয়ে মনের মধ্যে একটা খুঁতখুঁতে ভাব রয়ে গিয়েছে বলে স্পষ্ট জানিয়েছেন তিনি। সাইকোলজিক্যাল থ্রিলার ছবির গল্প লিখেছেন শ্রীলেখা নিজেই। আর ইন্দ্ররূপ ভট্টাচার্য রূপ দিয়েছেন চিত্রনাট্যের। ‘বিটার হাফ’ এর ডাবিং এখনও শেষ হয়নি। চলছে পোস্ট প্রোডাকশনের কাজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × one =

Translate »