আন্দোলন শেষে বিহারিদের পুনর্বাসনের আশ্বাস দিলেন ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: মিরপুরে বিহারিদের ক্যাম্প ভাঙচুরের প্রতিবাদে ও গৃহহীন বিহারিদের পুনর্বাসন দাবিতে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ ও পুনর্বাসন মন্ত্রীর বরাবর বিহারিদের ৫ টি সংগঠনের পক্ষে স্মারকলিপি প্রদান করেন ওয়েলফেয়ার মিশন অব বিহারিজের সভাপতি মোস্তাক আহমেদ ও উর্দু স্পীকিং পিপলস ইউথ রিহ্যাবিলিটেশন মুভমেন্টের সাধারণ সম্পাদক শাহিদ আলি বাবলু । এসময় গৃহহীন বিহারিদের পুনর্বাসনের আশ্বাস দিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান।

বৃহস্পতিবার ১১ ফেব্রুয়ারী দুপুরে স্মারকলিপি গ্রহণের সময় বিহারি নেতাদের এ আশ্বাস দেন ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান।

ত্রাণ ও পুনর্বাসন মন্ত্রণালয় থেকে বেরিয়ে ওয়েলফেয়ার মিশন অব বিহারিজের সভাপতি মোস্তাক আহমেদ সাংবাদিকদের জানান , স্মারকলিপি প্রদানের সময় প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমানের সাথে আমাদের সাক্ষাৎ হয়েছে। এসময় তিনি আমাদের বলেন,মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অনেক আগেই বিহারীদের পুনর্বাসনের জন্য আমাদের নির্দেশনা দিয়েছেন। তবে পুনর্বাসনের আগে ক্যাম্প উচ্ছেদ করা ঠিক হয়নি। আপনারা কোনো ঝামেলায় যাবেন না। এখন যারা ঘর-বাড়ি হারিয়ে ফেলেছেন তাদের পুনর্বাসনের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলবো।

এর আগে সকাল ১১ টায় হাইকোর্টের সামনে মিরপুরে বিহারি ক্যাম্প ভাঙচুর ও হামলার ঘটনায় জড়িত আদালত অবমাননাকারীদের শাস্তি, উচ্ছেদ অভিযানে গৃহহীন হওয়া উর্দুভাষীদের পুনর্বাসন ও উচ্ছেদের আগে পুনর্বসনের ব্যবস্থা করতে প্রধানমন্ত্রীর সু-স্পষ্ট ঘোষণার দাবিতে উর্দুভাষীদের পাঁচটি সংগঠন উর্দু স্পিকিং পিপলস ইউথ রিহ্যাবিলিটেশন মুভমেন্ট,ওয়েলফেয়ার মিশন অব বিহারিজ, এসপিজিআরসি মিরপুর শাখা, মুহাজির ওয়েলফেয়ার এন্ড ডেভলপমেন্ট মুভমেন্ট ও নন-লোকাল রিলিফ কমিটির যৌথ উদ্যেগে মনববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

ছবি: সায়ফুল আমিন কাজল

মানববন্ধনে উর্দু স্পিকিং পিপলস ইউথ রিহ্যাবিলিটেশন মুভমেন্টের সভাপতি মো. সাদাকাত খান ফাক্কু বলেন,‘গত ২১ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী হাজার হাজার গৃহহীনদের বাড়ি উপহার দিয়েছেন। সেদিনই মিরপুরে সন্ত্রাসী কায়দায় হামলা চালিয়ে হাজারো উর্দুভাষীকে গৃহহীন করেছেন ডিএনসিসির মেয়র আতিকুল ইসলাম। আমাদের এই ক্যাম্পগুলোতে ৫ নম্বর ওয়র্ডের কাউন্সিলর আব্দুর রউফ নান্নুসহ শতাধিক প্রভাবশালীদের প্লট রয়েছে। উচ্ছেদ অভিযানের পরপরই এ প্লটগুলোর বেশ কিছু জায়গা দখল করা হয়েছে। এখন পল্লবীতে বিহারি-বাঙ্গালী দাঙ্গা করানোর ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। রাস্তা অবমুক্ত করার দাবিতে আন্দোলন করছেন ৫ নং ওয়ার্ড আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক খলিল। তিনি নিজেও বহু মানুষের ঘর-বাড়ি দখল করেছেন। এখন সাধারণ জনগণের নামে আন্দোলন করে বিহারিদের ক্যাম্প দখলের চেষ্টা করছেন। আমরা এ বিষয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। উনার সাথে সাক্ষাতের অনুমতিও চেয়েছি। আমি উর্দুভাষীদের সাথে হওয়া অত্যাচারের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে ন্যায় বিচার দাবি করছি।

ওয়েলফেয়ার মিশন অব বিহারিজের সভাপতি মোস্তাক আহমেদ বলেন, ‘আগামী ২ মে পর্যন্ত আপিল বিভাগের স্থিতাবস্থা থাকা সত্ত্বেও অবৈধভাবে আমাদের ক্যাম্পের ঘর-বাড়ি ভাঙচুর করেছে ডিএনসিসি। মেয়র আতিকুল ইসলামের উপস্থিতিতে আমাদের ওপর সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয়েছে। হামলার সময় কাউন্সিলর নান্নুর ভাই নিরীহ বিহারিদের অস্ত্র দেখিয়ে ভয় দেখানোর চেষ্টা করেছেন। আমরা এ হামলার সঙ্গে জড়িতদের শাস্তি ও গৃহহীন হওয়া উর্দুভাষীদের পুনর্বাসনের দাবি জানাচ্ছি। ’

এসপিজিআরসি মিরপুর শাখার সভাপতি মোহাম্মাদ আলি বলেন, ডিএনসিসির উচ্ছেদ অভিযানে অবৈধভাবে উর্দুভাষীদের ঘর-বাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে। ১৮ দিন ধরে আমাদের ক্যাম্পের নারী-শিশুসহ সবাই এই তীব্র শীতে খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছে। এটা অত্যন্ত অমানবিক বিষয়। প্রধানমন্ত্রী তো বহু গৃহহীনদের বাসস্থান দিয়েছেন। তাহলে আমাদের বাড়ি কোথায় ? এই উচ্ছেদ অভিযানে গৃহহীন হওয়া উর্দুভাষীদের পুনর্বাসনের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে উদ্যেগ নেওয়ার আহবান জানান বিহারিদের এ নেতা।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ওয়েলফেয়ার মিশন অব বিহারিজের সভাপতি মোস্তাক আহমেদ, উর্দু স্পিকিং পিপলস ইউথ রিহ্যাবিলিটেশন মুভমেন্টের সভাপতি মো. সাদাকাত খান ফাক্কু, সাধারণ সম্পাদক শাহিদ আলি বাবলু, এসপিজিআরসি মিরপুরের সভাপতি আলি মোহাম্মদ, ওয়েলফেয়ার মিশন অব বিহারিজের সাধারণ সম্পাদক মো. হেলাল, মিরপুর ১১ রিলিফ কমিটির চেয়ারম্যান সারফারাজ আলম, মিরপুর ১১ রিলিফ কমিটির চেয়ারম্যান জালাল উদ্দিন ভন্টু,এসপিজিআরসি মিরপুর শাখার সাধারণ সম্পাদক মাহতাব আলম, মুহাজির ওয়েলফেয়ার এন্ড ডেভলপমেন্ট মুভমেন্টর সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাওন, ইউএসপিওয়াইআরএম’র সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ শাকিল, মন্জুর রেজা খান, দফতর সম্পাদক শেখ নাজের উদ্দিন রাশেদ, এসপিজিআরসি মিরপুর শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শাহজাহান, প্রচার সম্পাদক মো. আরমান, ওয়েলফেয়ার মিশন অব বিহারিজের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আনোয়ার,উর্দুভাষী যুব-ছাত্র আন্দোলনের সভাপতি ইমরান খান, সাধারণ সম্পাদক মাকসুদ আলম, ওয়েলফেয়ার মিশন অব বিহারিজ স্টুডেন্টের সভাপতি ইমরান আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক দিলশাদ আহমেদ, যব নেতা আসিফ ইকবাল, ইউএসপিওয়াইআরএম মিরপুর ১০ নং শাখার সভাপতি মোঃ জামিল, সাধরণ সম্পাদক গুড্ডু,আমান উল্লাহ আমান, মোঃ আজম আনসারি, মোহাম্মাদ আলি প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ten + nineteen =

Translate »