উত্তরাখণ্ডে টানেল থেকে ১৬ শ্রমিককে জীবিত উদ্ধার

ভারতের উত্তরাখণ্ডে হিমবাহ ভেঙে তুষারধসে বিদ্যুৎ প্রকল্পের সুড়ঙ্গের আটকেপড়া ১৬ শ্রমিককে জীবিত উদ্ধার করেছেন উদ্ধারকর্মীরা।

উত্তরাখণ্ডের চমোলি জেলায় হিমবাহ ভেঙে তুষারধসে ১৭০ জনেরও বেশি নিখোঁজ হয়েছেন। এ পর্যন্ত ১৪ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আরও অনেকের মৃত্যু হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

চামোলি জেলার তপোবনের কাছে একটি বিদ্যুৎ প্রকল্পের সুড়ঙ্গের মধ্যে কাজ করছিলেন ১৬ শ্রমিক, বানের সঙ্গে আসা কাদা ও পাথরে ওই সুড়ঙ্গের মুখ বন্ধ হয়ে যায়। খবর এনডিটিভির।

তাদের বেঁচে থাকার সম্ভাবনা নিয়ে প্রবল আশঙ্কার মধ্যেই তল্লাশি অভিযান শুরু করেন ভারত-তীব্বত সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সদস্যরা। কয়েক ঘণ্টার চেষ্টায় এক একে তাদের সবাইকেই উদ্ধার করা সম্ভব হয়।

প্রায় আড়াই কিলোমিটার দীর্ঘ ওই সুড়ঙ্গ থেকে তাদের উদ্ধারে রোববার রাতভর কাজ করে উদ্ধারকারী দলগুলো।

রোববার দুপুর পর্যন্ত ১৪ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ওই ঘটনায় এখনও কমপক্ষে দেড় শতাধিক মানুষ নিখোঁজ আছেন।

প্রেসিডেন্ট রামনাথ কোবিন্দ, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ভয়াবহ ওই বিপর্যয়ে উদ্বেগ প্রকাশের পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

ওই ঘটনা কেন্দ্র করে রোববার সন্ধ্যায় ন্যাশনাল ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট কমিটির বিশেষ বৈঠকে পরিস্থিতি পর্যালোচনা করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × four =

Translate »