দে‌শে ফির‌লেন ভারতের কারাগার থেকে মুক্ত ১৯ বাংলাদেশি

ভারতের বিভিন্ন কারাগারে দীর্ঘদিন কারাভোগ করা ১৯ বাংলাদেশি দেশে ফিরেছেন। এর মধ্যে পাঁচজন নারী। আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে সিলেটের বিয়ানীবাজার শেওলা সীমান্ত দিয়ে তারা বাংলাদেশে প্রবেশ করেন।

বিজিবি-বিএসএফ ব্যাটালিয়ন কমান্ডার পর্যায়ে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে বাংলাদেশি ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে তাদের হস্তান্তর করে ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ। বিজিবির কার্যকর উদ্যোগে প্রত্যাবাসনের নির্দেশনা প্রাপ্তির পর দ্রুততম সময়ে তারা দেশে ফিরতে পেরেছেন।

বিজিবি সূত্র জানায়, বাংলাদেশে প্রবেশের আগে শেওলা আইসিপিতে নিয়োজিত মেডিকেল অফিসার বিয়ানীবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন। তাদের সবার করোনা নেগেটিভ সনদ থাকায় পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। তবে অবশ্যই ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়।

এ সময় বিয়ানীবাজার ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল গাজী শহীদুল্লাহ, বিয়ানীবাজার থানা পুলিশের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, বাংলাদেশিদের ফিরিয়ে আনতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কূটনৈতিক তৎপরতায় আসামের বাংলাদেশ দূতাবাসের সহকারী হাইকমিশনার বিজিবিকে সার্বিক সহযোগিতা করে। বিজিবি সংশ্লিষ্ট বিএসএফ কর্তৃপক্ষ, আসাম পুলিশ ও রাজ্য সরকারের মুখ্য সচিবের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যমে ভারতের বিভিন্ন কারাগারে দীর্ঘদিন আটক থাকা ১৯ বাংলাদেশি নাগরিককে দেশে প্রত্যাবর্তনের ব্যবস্থা করে। এক্ষেত্রে স্থানীয় প্রশাসন সার্বিক সহযোগিতা করে।

গত ২২-২৬ ডিসেম্বর আসামের গৌহাটিতে অনুষ্ঠিত বিজিবি-বিএসএফ মহাপরিচালক পর্যায়ে সীমান্ত সম্মেলনে বিজিবি মহাপরিচালক ভারতে আটকেপড়া বাংলাদেশিদের দ্রুত প্রত্যাবাসনের ব্যাপারে আসাম রাজ্য সরকারের সহযোগিতার বিষয়টি উত্থাপন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

11 − 4 =

Translate »