করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাঁক্রো

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমান্যুয়েল ম্যাক্রোঁ। গুরুতর উপসর্গ না থাকায় হাসপাতালে না নিলেও আপাতত সাতদিন বাসায় আইসোলেশনে থাকবেন তিনি। সেখান থেকেই জরুরি কাজকর্ম চালিয়ে যাবেন এ নেতা। বৃহস্পতিবার এ তথ্য নিশ্চিত করে ফরাসি প্রেসিডেন্টের বাসভবন এলিসি প্যালেস কর্তৃপক্ষ।

এমান্যুয়েল ম্যাক্রোঁ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার এ খবরে রীতিমতো শোরগোল পড়ে গেছে বিশ্বে। করোনা পজিটিভ হয়ে ফরাসি প্রেসিডেন্ট শুধু একাই আইসোলেশনে যাচ্ছেন না, সঙ্গে নিচ্ছেন আরও অন্তত তিনটি দেশের সরকারপ্রধান ও আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রধানকে!

গত সপ্তাহে ব্রাসেলসে কয়েক ডজন বিশ্বনেতার সঙ্গে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সম্মেলনে অংশ নিয়েছিলেন প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ। সেখানে উপস্থিত ছিলেন জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মেরকেল, ইউরোপীয় কমিশনের সভাপতি উরসুলা ভন ডার লিয়েনসহ আরও অনেকে। অবশ্য এরপরে জার্মান চ্যান্সেলরের করোনা টেস্টের ফলাফল নেগেটিভ এসেছে বলে জানিয়েছে তার কার্যালয়।

ইইউ’র ওই সম্মেলনে হাঙ্গেরিয়ান প্রধানমন্ত্রী ভিক্টর অরবানের মুখে আদর করে অভ্যর্থনা জানাতে দেখা গিয়েছিল ম্যাক্রোঁকে। এসময় তাদের কয়েক হাত দূরেই ছিলেন অস্ট্রিয়ান চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কার্জ।

jagonews24

সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী অন্য নেতাদের মধ্যে ছিলেন ডাচ প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুট, বেলজিয়ান প্রধানমন্ত্রী অ্যালেক্সান্ডার ডি ক্রু, ইতালীয় প্রধানমন্ত্রী জিউসেপ কোৎ, ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সভাপতি ডেভিড সাসোলি প্রমূখ। এসময় বিভিন্ন দেশ ও সংস্থার প্রধানদের একাধিকবার স্পর্শ করতে দেখা যায় ফরাসি প্রেসিডেন্টকে।

গত বুধবার এমান্যুয়েল ম্যাক্রোঁর সঙ্গে মধ্যাহ্নভোজে অংশ নিয়েছিলেন পর্তুগালের প্রধানমন্ত্রী আন্তোনিও কস্তা। এলিসি প্যালেসের সিঁড়িতে তাকে জড়িয়েও ধরেছিলেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট।

বৃহস্পতিবার পর্তুগিজ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় জানিয়েছে, কস্তার পূর্বনির্ধারিত সব সফর বাতিল করা হয়েছে এবং তিনি সেলফ-আইসোলেশনে রয়েছেন।

jagonews24

গত ১৪ ডিসেম্বর প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন স্পেনের প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজ। বৃহস্পতিবার স্প্যানিশ সংবাদপত্র এল পাইস জানিয়েছে, ম্যাক্রোঁ করোনা পজিটিভ শোনার পর সাতদিনের জন্য সেলফ-আইসোলেশনে গিয়েছেন তাদের প্রধানমন্ত্রী।

মাত্র একদিন আগেই গোটা ফরাসি মন্ত্রিসভার সঙ্গে বৈঠক করেছেন প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ। তার সঙ্গে সাক্ষাৎ হওয়ায় আইসোলেশনে থাকছেন ফরাসি প্রধানমন্ত্রী জ্যঁ ক্যাসেক্স। তবে তার শরীরে কোনও উপসর্গ নেই।

সম্প্রতি মিসরের প্রেসিডেন্ট আবদেল ফাত্তাহ আল-সিসির সঙ্গেও সাক্ষাৎ হয়েছে ফরাসি প্রেসিডেন্টের। তবে মিসরীয় প্রেসিডেন্ট আইসোলেশনে গিয়েছেন কি না তা এখনও নিশ্চিত নয়।

jagonews24

কোভিড-১৯ আক্রান্ত ম্যাক্রোঁর সঙ্গে আইসোলেশনে যেতে হচ্ছে তার স্ত্রী ব্রিজিট ম্যাক্রোঁকেও। তার শরীরেও কোনও উপসর্গ নেই।

এমান্যুয়েল ম্যাক্রোঁ করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় আইসোলেশনে যাওয়ার তালিকায় রয়েছেন ইউরোপীয় কাউন্সিলের সভাপতি চার্লস মিশেলও।

ফরাসি প্রেসিডেন্টের কার্যালয় জানিয়েছে, এমান্যুয়েল ম্যাক্রোঁর মাধ্যমে আর কোথায় কোথায় ভাইরাস ছড়াতে পারে তা চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে।

jagonews24

এর আগে, এলিসি প্যালেস এক বিবৃতিতে জানায়, ৪২ বছর বয়সী ম্যাক্রোঁর শরীরে উপসর্গ দেখা দেয়ার সঙ্গে সঙ্গেই পরীক্ষা করানো হয়। পরীক্ষার ফলাফল করোনা পজিটিভ এসেছে। আপাতত বাসায় থেকেই জরুরি কাজ সারবেন তিনি। তবে সংক্ষিপ্ত ওই বিবৃতিতে ফরাসি প্রেসিডেন্টের শরীরে কী ধরনের উপসর্গ ছিল তা জানানো হয়নি।

আগামী ২২ ডিসেম্বর লেবানন সফরে যাওয়ার কথা ছিল ম্যাক্রোঁর। তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় এ সফর বাতিল করা হয়েছে।

ইউরোপে সবচেয়ে বেশি করোনা সংক্রমিত দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম ফ্রান্স। দেশটিতে এপর্যন্ত ২৪ লাখের বেশি মানুষ প্রাণঘাতী এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন অন্তত ৫৯ হাজার ৪৭২ জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *