অফিসে গিয়ে কাজ করার কোনো বিকল্প নেই: অ্যাপলের সিইও

করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) মহামারির কারণে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান কর্মীদের বাড়ি থেকে কাজ করার সুযোগ করে দিয়েছিল। তবে ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব কম শুরু করার পর অনেক প্রতিষ্ঠান কর্মীদের অফিসে ফিরিয়ে আনছে শুরু করেছে। যদিও এখন অনেক দেশেই করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে।

প্রযুক্তি জায়ান্ট অ্যাপল এবার আর কর্মীদের ঘরে বসে কাজের পথে হাঁটছে না। কর্মীদের ফিরতে হবে অফিসে! গত বৃহস্পতিবার কর্মীদের সঙ্গে ভার্চুয়াল সভায় অ্যাপলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) টিম কুক অফিসে ফেরার নতুন পরিকল্পনার কথা জানান। যদিও বাস্তবতা মেনে নিয়ে আগামী বছরের জুনের আগে বেশির ভাগ কর্মী অফিসে ফিরতে পারবেন না বলেও মনে করেন তিনি।

টিম কুক বলেন, ‌‘২০২১ সালের জুনের আগে সম্ভবত বেশির ভাগ কর্মী ফিরে আসতে পারবে না।’
তিনি জানান, নভেল করোনাভাইরাস লকডাউনে কর্মীদের বাড়ি থেকে কাজের বিষয়ে সফলতা পাওয়া গেছে। এটি ভবিষ্যতে দূর থেকে কাজ করতে আরো সক্ষম করে তুলবে। তবুও কুক চূড়ান্তভাবে কর্মীদের অফিসে ফিরিয়ে আনার বিষয়ে অনড়।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত কর্মীরা জানিয়েছেন, কুক বলেছেন- অফিসে সরাসরি কাজের কোনো বিকল্প নেই। তবে উৎপাদন কিংবা ফলাফলের কোনো হেরফের ছাড়াই অফিসের বাইরে থেকে কীভাবে আমরা কাজ শেষ করতে পারি, সে সম্পর্কে অনেক কিছু শিখেছি। এসব শিক্ষা গুরুত্বপূর্ণ। মহামারি শেষেও আমরা এ বছরের সেরা রূপান্তরগুলো বজায় রাখব।

সূত্র: ব্লুমবার্গ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *