ভুয়া সরকারী ওয়েবসাইট খুলে কোটি টাকা আত্মসাৎ যুবকের

নেত্রকোণায় তাবলীগ জামাতকে পুঁজি করে সরকারী  চাকরির নামে ভূয়া নিয়োগপত্র দিয়ে প্রতারণাসহ বেশ কয়েকটি অভিযোগে সাইদুর রহমান নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

 অভিযোগে  জানা যায়,  সাইদুর রহমানের বাড়ি, রুপসা থানার তালিমপুর গ্রামে। তিনি  সিদ্দিকুর রহমান ছেলে। সে কখনো ৩৭ তম বিসিএস ক্যাডার,এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, কখনো উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা, কখনো সচিবালয়ের কর্মকর্তা, কখনো বাংলাদেশ পুলিশের কর্মকর্তাসহ  নানা কর্মকর্তার নাম ভাঙ্গিয়ে  মিথ্যা পরিচয় দিয়ে চলাফেরা করত। এমনকি নিজেকে বাংলাদেশের একজন ভিআইপি হিসাবে পরিচয় দিতো এবং তার প্রাইভেটকার গাড়িতে বঙ্গভবনের স্টিকার লাগিয়ে চলাচল করত সে। এক পর্যায়ে এই প্রতারক মোঃ নুরুজ্জামান ( সাগর ) এর আত্মীয়ের বাড়ি নেত্রকোণা জেলার বৌরাটি ইউনিয়নসহ আশপাশের এলাকা থেকে প্রতারণার মাধ্যমে কয়েক কোটি টাকা হাতিয়ে নেয় ।   এছাড়া গোপালগঞ্জ, বাগেরহাট, যশোর, খুলনা, নোয়াপাড়া, ইত্যাদি জায়গা থেকে আসামি বিভিন্ন সময়ে চাকরি দেওয়ার নাম করে কোটি কোটি  টাকা হাতিয়ে নেয়।। আনুমানিক যার পরিমান ১০/ ১২ কোটি টাকা।  নেয়ার অভিযোগ  এস,এম সাইদুর রহমানকে আটক করে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) ।

আসামির বিরুদ্ধে নেত্রকোনায় তিনটি অভিযোগ থাকায় খুলনার পাইকগাছা থানা পুলিশ তাকে নেত্রকোনা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। এদিকে প্রতারণার শিকার পূর্বধলা উপজেলার ভুক্তভোগী তারা মিয়া ও সোহাগ মিয়ার করা পৃথক দুইটি মামলায় তাকে নেত্রকোনা আদালতে প্রেরণ করা হয়। বর্তমানে আসামি সাইদুর রহমান পূর্বধলা থানায় করা দুটি মামলায় পুলিশের রিমান্ডে রয়েছে।

প্রতারণার শিকার মামলার বাদী তারিম আহমেদ রিয়াদ বলেন, চাকরির কথা বলে সাইদুর ৭০ লাখ ৫০ হাজার টাকা নিয়েছে। রেলওয়ে বিভাগে ভুয়া চাকরি দিয়ে প্রতারণা করেছে। এই প্রতারক সাইদুর রহমান বাংলাদেশ সরকারের প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট www.dpe.gov.bd.com জালিয়াতি করে নিজেই একটি www.dpeo.gov.bd.com ওয়েবসাইট খুলে, যেখানে ভুক্তভোগীদের দেখানো হতো  সহকারী শিক্ষক পদে বিশেষ বিবেচনায় উত্তীর্ণ করা হয়েছে।

এমনকি সাইদুর রহমান সরকারি দফতরের বিভিন্ন কর্মকর্তাদের সিল এবং সই জালিয়াতি করে ভুক্তভোগীদের ভুয়া অ্যাডমিট কার্ড, ভাইভা কার্ড, প্রজ্ঞাপননামা ও নিয়োগপত্র প্রদান করত। এসব জালিয়াতির বিষয় জানাজানি হলে আসামি সাইদুর রহমানের কাছে ভুক্তভোগীরা টাকা, ভোটার আইডি কার্ড ও শিক্ষাগত যোগ্যতার মূল সার্টিফিকেট ফেরত চাইলে সাইদুর রহমান হামলা-মামলার ভয়-ভীতি দেখায়। খুন জখম করার হুমকি প্রদান করে।

এ ব্যাপারে পূর্বধলা থানার ওসি তৌহিদুর রহমান বলেন, আসামির বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ রয়েছে। এ মামলায় পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × five =

Translate »