‘পৃথিবী যেটা পারে না, সেটা বাংলাদেশ পারে’

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন বলেছেন, বাংলাদেশ কৃষিপ্রধান দেশ। আমাদের উর্বর মাটি আছে, যেখানে বীজ ফেলে দিলেই গাছ হয়। এত উর্বর মাটি আর কোথাও নেই। সেই মাটিকে আমাদের কাজে লাগাতে হবে।

তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতিতেও আমাদের কৃষকরা ফসল উৎপাদন করে যাচ্ছেন। আমাদের মাথাপিছু আয় বৃদ্ধি পাচ্ছে, রিজার্ভ বৃদ্ধি পাচ্ছে। পৃথিবীর মানুষ অবাক হয়ে দেখছে- সারা পৃথিবী যেটা পারে না, বাংলাদেশ সেটা কীভাবে পারে?

বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলা পরিষদ হলরুমে বিনামূল্যে বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরণ অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মো. শাহাব উদ্দিন এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, এক সময় হাওরপারের মানুষ শুধুমাত্র লবণ আর কেরোসিন কিনতে হতো, এখন সবকিছু কিনতে হয়। আমরা অনেক জায়গা খালি ফেলে রেখে বিদেশ থেকে পণ্য আমদানি করি।

তিনি আরও বলেন, কোনো জায়গা খালি না রেখে কাজে লাগাই, অন্তত নিজের এক বছরের প্রয়োজনীয় পেঁয়াজ উৎপাদন করি। আপনার উৎপাদিত পণ্যে আপনার পরিবার, গ্রাম, ইউনিয়ন চলবে। এভাবে একটু পরিশ্রম করলে আমরা অনেক এগিয়ে যেতে পারি। সরকার কৃষকদের উৎসাহিত করতে প্রণোদনা দিচ্ছে। সেগুলো সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে।

রবি-২০২০-২১ মৌসুমে প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় সরিষা, সূর্যমুখী, গম, মুগ, ভুট্টা, চীনাবাদাম ও বোরো উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরণ উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে জুড়ী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন- উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ মোঈদ ফারুক, ভাইস চেয়ারম্যান রিংকু রঞ্জন দাস, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রণজিতা শর্মা, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. জসিম উদ্দিন, জায়ফরনগর ইউপি চেয়ারম্যান মাছুম রেজা, জুড়ী উপজেলা প্রেস ক্লাব সভাপতি সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে উপজেলার প্রায় ৭০০ কৃষকের মাঝে বীজ ও সার বিতরণ করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one × 1 =

Translate »