কক্সবাজারে ২ লক্ষাধিক ইয়াবাসহ অস্ত্র উদ্ধার

কক্সবাজারের টেকনাফের নাফ নদীতে বিজিবির সঙ্গে গোলাগুলিতে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছে বিজিবির দুই সদস্যও। ঘটনাস্থল থেকে ২ লাখ ১০ হাজার পিস ইয়াবা, একটি দেশে তৈরি অস্ত্র ও দুই রাউন্ড কার্তুজের খালি খোসা উদ্ধার করা হয়েছে।

শুক্রবার (১৩ নভেম্বর) দিবাগত মধ্যরাতে এ গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। বিজিবি’র দাবী, নিহত ব্যক্তি ইয়াবা কারবারি। তবে তার পরিচয় সনাক্ত করা যায়নি।

টেকনাফের ২ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল ফয়সল হাসান খান জানান, বিজিবির কাছে খবর ছিল মধ্যরাতে নাফ নদীর ১ নম্বর স্লুইচ গেইট এলাকা মিয়ানমার থেকে ইয়াবার একটি বড় চালান আসতে পারে। এর পরিপ্রেক্ষিতে বিজিবির একটি বিশেষ টহল দল সেখানে স্পিডবোট নিয়ে টহলরত অবস্থায় ৩ জন সন্দেহজনক ব্যক্তিকে হস্তচালিত কাঠের নৌকা নিয়ে বাংলাদেশের জলসীমার দিকে আসতে দেখে। বিজিবির টহলদল তাদের চ্যালেঞ্জ করা মাত্রই তারা বিজিবি সদস্যদের লক্ষ করে গুলি বর্ষণ করতে থাকে। এতে বিজিবির দুই সদস্য আহত হয়। এ সময় বিজিবি সদস্যরাও পাল্টা গুলি চালালে দুজন ইয়াবা কারবারি নদীতে ঝাঁপ দিয়ে সাঁতরে শূন্য রেখা অতিক্রম করে মিয়ানমারের অভ্যন্তরে চলে যায়। পরে বিজিবি সদস্যরা কাঠের নৌকা থেকে অজ্ঞাতনামা এক ইয়াবা কারবারীকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে।

পরে তাকে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নৌকা তল্লাশি করে ২ লাখ ১০ হাজার ইয়াবা এবং গুলিবিদ্ধ ব্যক্তির কাছে একটি দেশে তৈরি অস্ত্র দুই রাউন্ড কার্তুজের খোসা উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার করা ইয়াবার মূল্য প্রায় ৬ কোটি ৩০ লাখ টাকা।

বিজিবি কর্মকর্তা লে. কর্নেল ফয়সল হাসান খান আরও জানান, এ ঘটনায় আহত বিজিবি সদস্যদের টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। সরকারি কাজে বাঁধা প্রদান এবং অবৈধ মাদক পাচারের দায়ে দোষী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনি পদক্ষেপ গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *