সীমিতভাবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি : মন্ত্রণালয়

সীমিতভাবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার ব্যাপারে সরকার এখনো পর্যন্ত কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। কিছু গণমাধ্যমে ‘শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার কথা ভাবছে সরকার’ শিরোনামে যে খবর প্রকাশ হয়েছে সেটাও ঠিক নয়।

বুধবার সন্ধ্যায় গণমাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি পাঠিয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, এ ধরনের কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

এর আগে বুধবার বাংলাদেশ এডুকেশন রিপোর্টার্স ফোরাম (বিইআরএফ) আয়োজিত অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রমের জরিপ প্রকাশের ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে বলেন, এ মাসের ১৪ তারিখ পর্যন্ত আমরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখেছি। আগামী ১৫ নভেম্বর খুলবে কিনা, নাকি বন্ধ রাখব, নাকি কোনো কোনো ক্লাসের জন্য সীমিত আকারে আমরা শুরু করতে পারব- এই সমস্ত বিষয় নিয়ে আমরা এখনও কাজ করছি। ১৪ নভেম্বরের আগে আমরা সিদ্ধান্ত আপনাদের জানিয়ে দিতে পারব। কারণ ১৪ তারিখের আগে তো আমাদের একটা সিদ্ধান্ত দিতেই হবে। কাল (বৃহস্পতিবার) বা পরশুর (শুক্রবার) মধ্যে আমাদের একটা সিদ্ধান্ত জানাতেই হবে।

শিক্ষামন্ত্রীর এই বক্তব্যের পর বেশ কয়েকটি গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, সরকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সীমিত পরিসরে খুলে দেয়ার চিন্তা করছে। শিক্ষামন্ত্রীর কথায় এমন আভাস পাওয়া গেছে।

এরপরই সীমিত পরিসরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া হতে পারে- এমন খবর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এর প্রেক্ষিতে বুধবার সন্ধ্যায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি-সংক্রান্ত বিষয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। এ বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হলে সঙ্গে সঙ্গে গণমাধ্যমকে অবহিত করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 − three =

Translate »