শাহবাগে মেডিকেল শিক্ষার্থীদের আন্দোলন, পুলিশের লাঠিচার্জ

চার দফা দাবীতে মেডিকেল শিক্ষার্থীদের অবরোধ কর্মসূচিতে লাঠিচার্জ করেছে পুলিশ। এতে চার শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন। এর আগে সকাল ১০ টায় শাহবাগ মোড়ে রাস্তা আটকিয়ে সরকারি-বেসরকারি, সাধারণ মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজের মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজের শিক্ষার্থীরা অবস্থান নেন। এতে আশেপাশের কয়েকটি সড়কে যানজট লেগে যায়। কয়েক ঘণ্টায়ও অবরোধ তুলে না নেয়ায় পুলিশ লাঠিচার্জ শুরু করে। এসময় শিক্ষার্থীরা চার দফা দাবির পক্ষে নানা স্লোগান দেন শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হলো-করোনা মহামারিতে পরীক্ষা নয়, অনতিবিলম্বে সেশনজট দূর করতে পরবর্তী ধাপের অনলাইন ক্লাস শুরু করতে হবে। বেসরকারি মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস কোর্সে নির্ধারিত ৬০ মাস, এবং বিডিএস কোর্সে ৪৮ মাসের (পুরাতনদের ৬০ মাস) বেশি বেতন ফি আদায় করা যাবে না এবং পরীক্ষা ও ক্লাস-সংক্রান্ত সব আদেশের ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে মেডিকেল শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যঝুঁকির কথা বিবেচনা করতে হবে।

দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীরা জানান, পূর্বঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে তারা সকাল ১০টা থেকে অবস্থান নিয়েছেন। জানা গেছে, ২৭ অক্টোবর স্বাস্থ্য অধিদপ্তর নোটিশ দিয়ে জানিয়েছে, চলতি বছরের ডিসেম্বরের তৃতীয় সপ্তাহে এমবিবিএস ও বিডিএস কোর্সের বৃত্তিমূলক পরীক্ষা নেয়া হবে। করোনার কারণে অন্যান্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মতো মেডিকেল কলেজের শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ আছে।

সরকার অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা কার্যক্রম চালু রাখতে বিকল্প উদ্যোগ নিলেও তাদের পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এটি তাদের জন্য হুমকি মনে করছেন এই শিক্ষার্থীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

10 − nine =

Translate »