শিশুকে প্রাইভেটকারে চাপা দেওয়ায় সওজের উপ-সহকারী প্রকৌশলী গ্রেফতার

পটুয়াখালীতে পাঁচ বছরের শিশুকে প্রাইভেটকারে চাপা দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় পটুয়াখালী সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী জাহিদুল ইসলাম মুন্নাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গুরুতর আহতাবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করে শিশু সাইমকে প্রথমে শহরের একটি ক্লিনিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেদ। পরে তাকে পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পাগলার মোড়-বাউফল মহাসড়কের দুমকী উপজেলার রাজাখালী বাজার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে দুমকী থানা পুলিশ ১৮ কিলোমিটার তাড়া করে পটুয়াখালী ব্রিজের টোল ঘর এলাকায় প্রাইভেটকারসহ জাহিদুল ইসলাম মুন্নাকে গ্রেফতার করে। এ ঘটনায় জাহিদুল ইসলাম মুন্নার বিরুদ্ধে দুমকী থানায় নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে।

পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের দায়িত্বরত চিকিৎসক সেলিম মাতুব্বর বলেছেন, শিশুটির বাম পায়ের হাঁটুর নিচে নলার হাড্ডির নিচে দুটি স্থানে পুরোপুরি ভেঙে গেছে। শিশুটির মাথায় আঘাত রয়েছে। কমপক্ষে ৭২ ঘণ্টা অবজারভেশনে তাকে রাখা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার শ্রীরামপুর ইউনিয়নের কার্ত্তিকপাশা গ্রামের বাড়ি থেকে মা সালমা বেগমের সঙ্গে শিশু সাইম নানাবাড়ি যাচ্ছিল। তখন বাউফল থেকে আসা ঢাকা মেট্রো গ-৩১-৩০০৪ নম্বরের প্রাইভেটকারটি দ্রুতগতিতে এসে সাইমকে চাপা দিয়ে চালিয়ে যায়। তাৎক্ষণিকভাবে স্থানীয়রা দুমকী পুলিশকে খবর দিলে দুমকী থানার এসআই সঞ্জিব কুমার সরকার প্রায় আধা ঘণ্টা ধাওয়া করে পটুয়াখালী টোলঘর এলাকা থেকে গাড়িসহ মুন্নাকে গ্রেফতার করে।

দুমকী থানার এসআই সঞ্জিব কুমার সরকার জানান, প্রাইভেটকারটি পটুয়াখালী সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী নিজেই চালাচ্ছিলেন। দ্রুতগতিতে চালানোর জন্যই নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে শিশু সাইমকে চাপা দেন। এতে সাইমের বাম পায়ের দুটি স্থানে ভেঙে গেছে। এ ঘটনায় মুন্নার বিরুদ্ধে থানায় নিয়মিত মামলা করা হয়েছে। তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

দুমকী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মেহেদি হাসান জানান, শিশু সাইমের মা সালমা বেগম বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছেন। গাড়িটি জব্দ করা হয়েছে। জাহিদুল ইসলাম মুন্নাকে কারাগারে পাঠানো হচ্ছে।

প্রাইভেটকারটি মুন্নার ব্যক্তিগত হলেও গাড়ির সামনে ও পেছনে সওজের স্টিকার লাগানো আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

13 + 19 =

Translate »