শুধুমাত্র বিয়ের জন্যে ধর্মান্তরকরণে নিষেধাজ্ঞা জারি করলো হাইকোর্ট

শুধুমাত্র বিয়ে করার জন্যে ধর্মান্তরকরণে নিষেধাজ্ঞা জারি করলো এলাহাবাদ হাইকোর্ট। এক যুগান্তকারী রায়ে তারা জানিয়ে দিল যে, শুধু বিয়ে করার জন্যে ধর্ম বদল করার প্রবণতা বন্ধ হওয়া উচিত। জনৈকা প্রিয়াংশি বিয়ের জন্যে ধর্ম বদল চেয়ে সামরিন নামে পরিচিত হতে চেয়ে যে আবেদন করেছিলেন তা নাকচ করে আদালত। প্রয়াগরাজে অবস্থিত এলাহাবাদ হাইকোর্ট জানায় ২৯ জুন এফিডেভিটের বলে প্রিয়াংশি সামরিন হয় এবং ৩১ জুলাই মুসলিম ধর্মমতে তার বিয়ে হয়। এক্ষেত্রে বিশ্বাস অথবা আস্থা নয় নিছক প্রয়োজনে ধর্মান্তরকরণের ঘটনা ঘটেছে।

তাই, আদালত এই ধর্মান্তরকরণে সায় দিতে পারে না। এলাহাবাদ হাইকোর্টের বিচারপতি মহেশ প্রসাদ ত্রিপাঠি ২০১৪ সালে এই আদালতে নুরজাহান বেগম মামলার রায়টি উল্লেখ করেন। ২০১৪ সালে হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে নুরজাহান ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে বিয়ে করেন। বিয়ের পর নবদম্পতি আদালতে রিট পিটিশন করেন যে তাঁদের বিবাহিত জীবনে অনুপ্রবেশ করছে নুরজাহানের বাড়ির লোক। এলাহাবাদ হাইকোর্ট তখন রায় দিয়েছিলো শুধু বিয়ের প্রয়োজনে এই ধর্মান্তরকরণ অনুমোদনযোগ্য নয়। হাইকোর্ট মনে করে, ধর্মে বিশ্বাসের বদলে নিছক প্রয়োজন ধর্মান্তরকরিত করে যা অনভিপ্রেত। এলাহাবাদ হাইকোর্টের এই রায় যে নিস্তরঙ্গ সমুদ্রে ঢেউ তুলবে তা বলাই বাহুল্য।।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eighteen − thirteen =

Translate »