রংপুরে স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ : সেই এএসআই গ্রেপ্তার

রংপুরে স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনায় বরখাস্তকৃত ডিবি পুলিশের এএসআই রায়হানুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছে পিবিআই। বুধবার রাতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

তার আগে বুধবার বিকালে নির্যাতিতা স্কুলছাত্রী জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জাহাঙ্গীর আলমের আদালতে উপস্থিত হয়ে জানান, গত ২৩ অক্টোবর গোয়েন্দা পুলিশ কর্মকর্তা রায়হানুল ইসলাম কর্তৃক ধর্ষণের শিকার হয়েছেন তিনি। তারপরই রায়হানুলকে গ্রেপ্তার করা হয়। রংপুর পিবিআইয়ের পুলিশ সুপার এবিএম জাকির হোসেন সাংবাদিকদের জানান, রায়হানুলসহ এ পর্যন্ত পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, রংপুর মেট্রোপলিটন এলাকার ময়নাকুঠি কচুটারিতে নবম শ্রেণির ওই ছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে ডিবি পুলিশের এএসআই রায়হানুল ইসলাম। প্রেমের সম্পর্কের সূত্র ধরে গত ২৩ অক্টোবর সকালে ওই ছাত্রীকে বেড়াতে নিয়ে যায় রায়হানুল। পরে নগরীর বাহারকাছনা ক্যাদারেরপুল এলাকার শহিদুল্লাহ মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া সুমাইয়া পারভীন মেঘলার বাড়িতে ডেকে নিয়ে রায়হানুল ও আরও কয়েকজন তাকে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে এসআই রায়হানুলসহ দুই জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করে হারাগাছ থানায় ধর্ষণ মামলা করেন।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত আবুল কালাম আজাদ ও বাবুল হোসেন বুধবার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। এর আগে গণধর্ষণে সহযোগিতার অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয় সুমাইয়া আক্তার মেঘলা ও সুরভী আক্তার সমাপ্তিকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

fourteen + 17 =

Translate »