মুহাম্মদ (সা.) কে অপমান মুসলিমদের অপমান: রুহানি

ইসলাম নিয়ে ফ্রান্সের ভূমিকার সমালোচনা করেছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। পাশাপাশি মুহাম্মদ (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্রের প্রতি পশ্চিমা দেশগুলোর সমর্থনকে অনৈতিক এবং মুসলিমদের জন্য অপমানজনক বলে মন্তব্য করেছেন।

 

বুধবার মন্ত্রিসভার এক বৈঠকে এমন মন্তব্য করেন ইরানি প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেন, স্বাধীনতাকে অবশ্যই মূল্যবোধের প্রতি সম্মান এবং নৈতিকতার বিবেচনার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ থাকতে হবে।

 

রুহানি বলেন, মুসলিম ও বিশ্বের স্বাধীনতা প্রেমীরা ইসলামের মহান নবী (সা.) কে ভালোবাসে এটা অবশ্যই বুঝতে হবে পশ্চিমাদের। তাই মুহাম্মদ (সা.) কে অপমান মুসলিমদের অপমান। রাসুল (সা.) কে অপমান করা সব নবী (আ.), মানবিক মূল্যবোধ এবং নৈতিকতাকে অপমান করা।

 

ইরানি প্রেসিডেন্ট বলেন, অবমাননা কোনও শিল্প হতে পারে না বরং এটা হচ্ছে নীতি-নৈতিকতা পরিপন্থী কাজ। এর মাধ্যমে শত শত কোটি মুসলমানসহ অসংখ্য মানুষের হৃদয়ে আঘাত করা হচ্ছে, সহিংসতায় উস্কানি দেয়া হচ্ছে।

 

রুহানি আরও বলেন, ইউরোপীয়রাসহ প্রাচ্য ও পাশ্চাত্যের প্রতিটি মানুষ মুহাম্মাদ (স.) এর কাছে ঋণী। কারণ তিনি হলেন মানবতার শিক্ষক। এটা খুব বিস্ময়কর যে, যারা নিজেরা মুখে মুক্তি, স্বাধীনতা, ন্যায়-নীতি ও আইনের কথা বলে তারাই একে অপরকে অবমাননার জন্য জনগণকে উস্কানি দিচ্ছে।

 

মতপ্রকাশের অধিকার ব্যাখ্যা করতে গিয়ে মহানবী (সা.) এর কার্টুন দেখিয়ে হত্যাকাণ্ডের শিকার হন ফরাসি শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটি। এ ঘটনার পর ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ বলেন, তার দেশ কখনও এ ধরনের কার্টুন ছাপানো বন্ধ করবে না।

 

এ ঘটনায় মুসলিম বিশ্বে ক্ষোভের ঝড় ওঠে। বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বিক্ষোভ সমাবেশ হচ্ছে। এমনকি ফ্রান্সের পণ্য বর্জনের ডাক দিয়েছে বিশ্বের বিভিন্ন মুসলিম দেশও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *