চুপিচুপি নায়িকা শার্লিনের বিয়ে

নাটক আর বিজ্ঞাপনচিত্রে কাজ করা শার্লিনের প্রথম সিনেমা ‘ঊনপঞ্চাশ বাতাস’। গেল বছরের শেষ দিকে ছবিটি মুক্তির প্রস্তুতি শুরু হয়। এর মধ্যে সেপ্টেম্বর মাসে বাগদান ও নভেম্বর মাসে বিয়ে করে ফেলেন তিনি। কিন্তু কাউকেই সে কথা জানাননি এই অভিনেত্রী। সম্প্রতি তিনি জানালেন, কী কারণে চুপিচুপি বিয়ে করেছিলেন।

ছবির মুক্তির আগে বিয়ের খবর বেরোলে দর্শকের আগ্রহ ভিন্ন দিকে সরে যেতে পারে, এটাই ছিল তাঁর বিয়ের খবর লুকিয়ে রাখার প্রধান কারণ। যদিও ছবি মুক্তি পায়নি, তবু এবার তো খবর ঠিকই বেরোল! শার্লিন জানালেন, পারিবারিক কারণে বিয়ের খবরটি তিনি আটকে রাখতে পারলেন না। আজ শনিবার দুপুরে প্রথম আলোকে এমনটাই জানালেন ‘ঊনপঞ্চাশ বাতাস’ ছবির অভিনয়শিল্পী শার্লিন ফারজানা।

শার্লিনের বর এহসানুল হক পেশায় ব্যবসায়ী ও প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ। ২০১৯ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর বাগদান আর ২৩ নভেম্বর বিয়ে করেন তাঁরা। দুটি অনুষ্ঠানে বর–কনের পরিবার ও ঘনিষ্ঠ মানুষেরা উপস্থিত ছিলেন।

‘ঊনপঞ্চাশ বাতাস’ প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে, দর্শকের সঙ্গে বসে বড় পর্দায় ছবিটি দেখবেন শার্লিন, এমন স্বপ্ন তাঁর অনেক দিনের। আর ছবিটি মুক্তি পেলে তবেই বিয়ের খবরটি সবাইকে জানাবেন, এমনটাই ভেবে রেখেছিলেন। কিন্তু করোনার কারণে ছবি মুক্তির সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেন প্রযোজক। করোনার প্রকোপ বাড়তে থাকায় মুক্তির সময় অনিশ্চিত হয়ে পড়ে। এদিকে শার্লিনের পরিবার ও তাঁর শ্বশুরবাড়ির লোকেরা বিয়ের খবরটি আর লুকিয়ে রাখতে রাজি নন।

শার্লিন ও এহসানুল হক

শার্লিন ও এহসানুল হক

শার্লিন জানান, আগামী বছরের জানুয়ারি মাসে বিবাহোত্তর সংবর্ধনার আয়োজন করা হবে। নতুন জীবন যাতে সুন্দরভাবে কাটাতে পারেন, সে জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন শার্লিন ও এহসানুল। শার্লিন বলেন, ‘যাঁকে পছন্দ করেছি, তাঁকে নিয়েই সংসারজীবন শুরু করেছি। মনের মানুষকে নিয়ে যেন জীবনটা কাটাতে পারি, সবার কাছে সেই দোয়া চাই।’

প্রসঙ্গত ২০০৮ সালে ‘ইউ গট দ্য লুক’ সুন্দরী প্রতিযোগীতার বিজয়ী হয়ে বিনোদন অঙ্গনে পথচলা শুরু করেন শার্লিন ফারজানা। এরপর মডেল হিসেবে পরিচিতি পান তিনি। অমিতাভ রেজা চৌধুরী ও গাজী শুভ্রর বিজ্ঞাপনচিত্রে মডেল হয়ে রাতারাতি আলোচনায় চলে আসেন তিনি। এরপর কাজ শুরু করেন নাটকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.