সাফল্যের সঙ্গে ভয়ঙ্কর হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা রাশিয়ার

রাশিয়া সফলতার সঙ্গে একটি ভয়ঙ্কর হাইপারসনিক ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রে পরীক্ষা চালিয়েছে। রুশ সামরিক বাহিনীর এ সফলতায় প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন প্রশংসা করে বলেছেন, হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির ফলে দেশের নিরাপত্তা আরো জোরদার হবে। খবর পার্সটুডের।

ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রেসিডেন্ট পুতিনকে হাইপারসনিক ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাযর সফলতার খবর জানান রুশ সশস্ত্র বাহিনীর জেনারেল স্টাফ ভ্যালেরি গেরাসিমভ। তিনি বলেন, জারকন নামের এই হাইপারসনিক ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র শ্বেত সাগর থেকে মঙ্গলবার সফলতার সঙ্গে পরীক্ষা করা হয়েছে।
রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার একটি ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করেছে যাতে দেখা যাচ্ছে একটি যুদ্ধজাহাজের উন্মুক্ত ডেক থেকে ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়া হচ্ছে এবং তা একটু পাক খেয়ে উপরের দিকে উঠছে এবং ব্যারেন্ট সাগরে লক্ষ্যবস্তুর দিকে ছুটে যাচ্ছে।

জেনারেল গেরাসিমোভ জানান, “পরীক্ষা সফল হয়েছে এবং ক্ষেপণাস্ত্র সরাসরি তার লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হেনেছে।”তিনি জানান, ৪৫০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে ক্ষেপণাস্ত্রটি লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানে। ক্ষেপণাস্ত্রটি এসময় সর্বোচ্চ ২৮ কিলোমিটার উপরে ওঠে এবং ৪৫০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে মাত্র সাড়ে চার মিনিট সময় নেয়।

গেরামিসভ জানান, শব্দের চেয়ে আট গুণ বেশি গতিতে চলতে সক্ষম এ ক্ষেপণাস্ত্র। হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার প্রশংসা করে রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিন বলেছেন, এ সফলতা জাতীয় নিরাপত্তার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে। তিনি আশা করছেন, রাশিয়ার বিশেষজ্ঞরা দেশকে নতুন করে অস্ত্রসজ্জিত করার ব্যাপারে অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে অবদান রেখে চলবেন। হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রটি আগামী কয়েক বছরের মধ্যে রুশ সামরিক বাহিনীতে যুক্ত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *