কক্সবাজারে মুখোশধারীর গুলিতে শিশু শিল্পী নিহত

কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁও-ঈদগড় সড়কের হিমছড়ি ঢালায় মুখোশধারীর গুলিতে চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গানের শিশু শিল্পী জনি দে রাজ নিহত হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত জনি রামু উপজেলার ঈদগড় ইউনিয়নের পূর্বরাজঘাট এলাকার তপন দের ছেলে। তিনি ঈদগাহ ফরিদ আহমদ ডিগ্রি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির মানবিক শাখার শিক্ষার্থী ছিলেন।
পুলিশ ও জনির সঙ্গে থাকা তার বাবা তপন দে জানান, বুধবার রাতে জেলার চকরিয়ায় একটি অনুষ্ঠানে গান পরিবেশন করেন জনি দে। আজ সকালে সিএনজিচালিত অটোরিকশা ভাড়া নিয়ে জনি ও তার বাবা চকরিয়া থেকে বাড়ির পথে রওনা হন।

সকাল আটটার দিকে অটোরিকশাটি ঈদগাহ-ঈদগড়-বাইশারি সড়কের হিমছড়ি ঢালায় পৌঁছালে মুখোশধারী কয়েকজন গাড়িটির গতিরোধ করেন। এরপর জনিকে গুলি করে তারা জঙ্গলে চলে যান।

পারিবারিক সূত্র জানায়, জনি বাড়ি থেকে বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গান পরিবেশন করে টাকা উপার্জন করতেন। এলাকায় তার বেশ জনপ্রিয়তাও আছে। এলাকায় কারও সঙ্গে জনির শত্রুতা নেই।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ঈদগড় ৪ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি মো. আলমগীর হোসেন জানান, ঈদগাঁও থেকে ঈদগড় আসার পথে হিমছড়ি ঢালায় সিএনজিবাহী যাত্রীরা ডাকাতির শিকার হন। এসময় ডাকাতের গুলিতে কণ্ঠশিল্পী জনি নিহত হয়েছে। অন্য যাত্রীদেরও আঘাত করা হয়েছে।

রামু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম আজমিরুজ্জামান বলেন, গুলিতে ওই কণ্ঠশিল্পীর মৃত্যু হয়েছে। তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। দোষীদের ধরতে সেখানে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ। ডাকাতের গুলিতে তার মৃত্যু হতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *