উত্তেজনার মধ্যে কাতার সফরে এরদোগান, রুদ্ধদ্বার বৈঠক

আজারবাইজান-আর্মেনিয়ার মধ্যে চলমান সংঘাতের মধ্যেই ভূমধ্যসাগর সংকটসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করতে কাতার সফর করছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান।

দ্বিপাক্ষিক আলোচনার পাশাপাশি আজারবাইজান-আর্মেনিয়ার মধ্যে চলমান যুদ্ধ নিয়ে কথা বলেন দু’নেতা। এছাড়া তাদের আলোচনায় ফিলিস্তিন, কাশ্মীর, সিরিয়া ইস্যুও স্থান পেয়েছে।

আলজাজিরা জানিয়েছে, বুধবার স্থানীয় সময় দুপুর আড়াইটায় দোহা বিমানবন্দরে পৌঁছান তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান। এসময় কাতারের প্রতিরক্ষামন্ত্রী খালিদ বিন মোহাম্মদ আল আত্তিয়া তাকে স্বাগত জানান।

২০১৭ সালের ৫ জুন সন্ত্রাসবাদে সমর্থনের অভিযোগ এনে কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে সৌদি আরব, বাহরাইন, কুয়েত ও মিসরসহ কয়েকটি দেশ।

এই সংকট শুরুর দুইদিন পর তুরস্কের পার্লামেন্ট কাতারে তাদের সামরিক ঘাঁটিতে সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নেয়। তাদের সামরিক সম্পর্ক আরও জোরদার হয়।

অবরোধ জারিকৃত দেশগুলোর ১৩ দাবির মধ্যে একটি ছিল কাতার থেকে তুরস্কের সামরিক ঘাঁটি প্রত্যাহার করা। তবে সেই পথে হাঁটেনি কাতার।

২০১৫ সালের ১৮ জুন তারিক ইবন জিয়াদ সামরিক ঘাঁটিতে প্রথমবারের মতো অবস্থান নেয় তুর্কি সেনারা। এতে করে কাতারের সামরিক শক্তি বৃদ্ধি পায়। সন্ত্রাস দমন করে এই অঞ্চলে শান্তিও স্থিতিশীলতা বজায় রাখার আশা ব্যক্ত করেন উভয় দেশের নেতারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 − 7 =

Translate »