নেদারল্যান্ড ফুটবলের দায়িত্ব পেলেন ডি বোয়ার

নেদারল্যান্ড জাতীয় ফুটবল দলের কোচ হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন আটালান্টা ইউনাইটেডের সাবেক বস ফ্র্যাংক ডি বোয়ার। রোনাল্ড কোম্যান জাতীয় দলের দায়িত্ব ছেড়ে বার্সেলোনায় যোগ দেয়ায় পদটি শুন্য হয়ে পড়েছিল।

২০১৮ সালে বিশ্বকাপে জায়গা করে নিতে ব্যর্থ হবার পর নেদারল্যান্ডের দায়িত্ব পেয়েছিলেন কোম্যান। টানা দ্বিতীয়বারের মত বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে খেলতে ব্যর্থ হওয়া নেদারল্যান্ড কোম্যানের অধীনে নিজেদের দারুণভাবে লড়াইয়ে ফিরিয়ে নিয়ে আসে। কোম্যানের অধীনে নেদারল্যান্ড ২০২০ ইউরোর চূড়ান্ত পর্ব নিশ্চিত করার পাশাপাশি প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত উয়েফা নেশন্স লিগের ফাইনালে পর্তুগালের কাছে পরাজিত হয়ে রানার্স-আপ হয়।

২০২০-২১ নেশন্স লিগ ও করোনার কারণে পিছিয়ে যাওয়া ইউরো ২০২০’র চূড়ান্ত পর্বকে সামনে রেখে ডি বোয়ারকে ডাচদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

২০১১-১৪ সাল পর্যন্ত টানা চার বছর আয়াক্সের ম্যানজোর হিসেবে ডাচ লিগ শিরোপা জিতেছেন বার্সেলোনার সাবেক এই ডিফেন্ডার। ইন্টার মিলান ও ক্রিস্টাল প্যালেসের হয়ে অবশ্য তার মেয়াদটা খুব বেশী সুখকর হয়নি।

এরপর ২০১৮ সালে তিনি আটালান্টার কোচ হিসেবে যোগ দেন। তার অধীনে আটালান্টা ইস্টার্ন কনফারেন্সের ফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে। যদি ম্যাচটিতে টরেন্টোর এফসির কাছে ২-১ গোলে পরাজিত হয় তার দল। এমএলএস ইস ব্যাক টুর্নামেন্টে কিছুটা আগেভাগেই বিদায় নেবার পর তিনি আটালান্টার দায়িত্ব থেকে সড়ে দাঁড়ান।

২০১০ বিশ্বকাপে স্পেনের কাছে ফাইনালে পরাজিত হয়ে রানার্স-আপ নেদারল্যান্ডের ম্যানেজার বার্ট ফন মারউইকের সহকারী হিসেবে তিনি সেই দলে কাজ করেছেন।

আয়াক্সের হয়ে খেলোয়াড়ী ক্যারিয়ার শুরু করা ডি বোয়ার সেখানে সাড়ে ১০ বছর কাটিয়েছেন। এই সময়ের মধ্যে আয়াক্সের হয়ে জিতেছের পাঁচটি লিগ ও একটি উয়েফা কাপ ও চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা। ১৯৯৯ সালে বার্সেলোনায় যোগ দিয়ে একটি লা লিগা শিরোপা জয় করেছিলেন।

জাতীয় দলের জার্সি গায়ে তৃতীয় সর্বোচ্চ ১১২টি ম্যাচ খেলেছেন। ১৯৯৪ ও ১৯৯৮ সালের বিশ্বকাপের পাশাপাশি ১৯৯২, ১৯৯৬ ও ২০০০ সালের ইউরোপীয়ান চ্যাম্পিয়নশীপেও খেলেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *