অবৈধ গ্যাস সংযোগও দিতেন স্বাস্থের ড্রাইভার মালেক

স্বাস্থ্য অধিদফতরে আধিপত্য বিস্তার, নিয়োগ বাণিজ্য, অস্ত্র ও জাল টাকার পাশাপাশি তুরাগে অবৈধ গ্যাস সংযোগের ব্যবসাও করতেন ড্রাইভার আব্দুল মালেক। স্বাস্থ্য অধিদফতরের মালেক ড্রাইভার কী করে শত কোটি টাকার মালিক হলেন- এটাই এখন ‘টক অব দ্য টাউন’।

যেভাবে কোটিপতি ড্রাইভার মালেক-

অনুসন্ধানে দেখা গেছে, সামান্য একজন ড্রাইভার থেকে কোটিপতি হওয়ার বিষয়টি এলাকার মানুষের কাছে সিনেমার গল্পকেও হার মানিয়েছে। অধিদফতরে আধিপত্য বিস্তার, নিয়োগ বাণিজ্য, টেন্ডারবাজি, অস্ত্র ও জাল টাকার ব্যবসার পাশাপাশি এলাকায় অবৈধ গ্যাস সংযোগের ব্যবসা করতেন মালেক। এসব করেই গাড়ি, বাড়ি ও কোটি কোটি টাকার সম্পদের মালিক হয়েছেন মালেক। তার এতো সম্পদের কথা শুনে এলাকার লোকজনও বিস্মিত।

মাত্র অষ্টম শ্রেণি পাস আব্দুল মালেক। ১৯৮২ সালে স্বাস্থ্য অধিদফতরের ড্রাইভার হিসেবে চাকরিতে যোগদান করেন। পরবর্তীতে ১৯৮৬ সালে চাকরি স্থায়ী হওয়ার পর স্বাস্থ্য অধিদফতরের সাবেক এক ডিজির গাড়ির ড্রাইভার হন। এরপর থেকেই তাকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি।

শুরু করেন অধিদফতরে আধিপত্য বিস্তার। একে একে অধিদফতরে নিয়োগ দিয়েছেন মেয়ে, মেয়ের জামাইসহ প্রায় ৫০ জন আত্মীয়-স্বজনকে। অধিদফতরের একটি পাজেরো গাড়িসহ বেশকয়েকটি গাড়ি তিনি তার পারিবারিক প্রয়োজনে ব্যবহার করতেন। গড়ে তুলেছেন শত কোটি টাকার সম্পদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *