স্বাস্থ্যের সেই গাড়িচালকের ১৪ দিনের রিমান্ড আবেদন

জাল টাকা, অবৈধ অস্ত্র ও চাঁদাবাজির অভিযোগে গ্রেপ্তার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের গাড়িচালক আব্দুল মালেককে আদালতে তোলা হয়েছে। সোমবার বেলা পৌনে ১১টার দিকে ঢাকা মহানগর হাকিম দেবদাস চন্দ্র অধিকারীর আদালতে তোলা হয় তাকে। আদালতে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১৪ দিনের রিমান্ড আবেদন করবে পুলিশ।

তুরাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) মো. শফিউল্লাহ ঢাকাটাইমসকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, বেলা পৌনে ১১টার দিকে আব্দুল মালেককে আদালতে তোলা হয়েছে। আদালতে তোলার পর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তুরাগ থানায় করা দুই মামলায় সাত দিন করে ১৪ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হবে। তার মধ্যে অবৈধ অস্ত্র আইনে করা মামলায় সাত দিন ও বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় সাত দিন করে রিমান্ড চাওয়া হবে।

রবিবার রাজধানীর তুরাগ এলাকার বামনেরটেকের বাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। পরে সংবাদ সম্মলনে র‌্যাব জানায়, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মালেক ড্রাইভারের শত কোটি টাকার সম্পদের সন্ধান পাওয়া গেছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারী মালেক পেশায় একজন ড্রাইভার। মালেকের স্ত্রীর নামে দক্ষিণ কামারপাড়ায় ২টি সাততলা বিলাসবহুল ভবন আছে।

ধানমন্ডির হাতিরপুল এলাকায় ৪.৫ কাঠা জমিতে একটি নির্মাণাধীন ১০ তলা ভবন আছে এবং দক্ষিণ কামারপাড়ায় ১৫ কাঠা জমিতে একটি ডেইরি ফার্ম আছে। এছাড়াও বিভিন্ন ব্যাংকে নামে-বেনামে বিপুল অর্থ গচ্ছিত রয়েছে।

গাড়িচালক আব্দুল মালেকের শিক্ষাগত যোগ্যতা ৮ম শ্রেণি। তিনি ১৯৮২ সালে সর্বপ্রথম সাভার স্বাস্থ্য প্রকল্পে ড্রাইভার হিসেবে যোগদান করেন। পরবর্তীতে ১৯৮৬ সালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিবহন পুলে ড্রাইভার হিসেবে চাকরি শুরু করেন। বর্তমানে তিনি প্রেষণে স্বাস্থ্য ও শিক্ষা অধিদপ্তরে কর্মরত রয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *