যুক্তরাষ্ট্রের উপকূলে হ্যারিকেন স্যালির তাণ্ডব

যুক্তরাষ্ট্রের উপকূলে হারিকেন স্যালি তাণ্ডব চালিয়েছে। এর প্রভাবে পাঁচ লাখেরও বেশি মানুষ বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়েছে।

হারিকেনটি দুর্বল হয়ে ক্রান্তীয় ঝড়ে পরিণত হলেও এর প্রভাবে আলাবামা-ফ্লোরিডা উপকূলে ব্যাপক বন্যা দেখা দিয়েছে।

স্থানীয় সময় বুধবার ভোরে মেক্সিকো উপসাগরের আলাবামা উপকূল দিয়ে স্যালি ২ মাত্রার হারিকেন হিসেবে স্থলে উঠে আসে, পরে বিকেলে শক্তি হারিয়ে এটি ক্রান্তীয় ঝড়ে পরিণত হয়। বাতাসের একটানা বেগ কমে ঘণ্টায় ১১৩ কিলোমিটারে নেমে আসে। খবর বিবিসির

যুক্তরাষ্ট্রের উপকূলে হ্যারিকেন স্যালির তাণ্ডব-বিবিসি

 

 

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল হারিকেন সেন্টার (এনএইচসি) একে ‘ঐতিহাসিক ও সর্বনাশা’ বন্যা হিসেবে বর্ণনা করে জানিয়েছে, ফ্লোরিডার পানহান্ডলে এবং দক্ষিণ আলাবামার কিছু অংশে বিপর্যয়কর বন্যা দেখা দিয়েছে।

হারিকেন স্যালি গাছপালা উপড়ে ফেলেছে, রাস্তাগুলো ডুবিয়ে দিয়েছে এবং ঝড়ে কারণে কয়েক লাখ বাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বিদ্যুৎবিহীন হয়ে পড়েছে।

আলাবামার মেয়র জানিয়েছেন, অরেঞ্জ বিচ শহরে একজন মারা গেছেন এবং অপর একজন নিখোঁজ রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের উপকূলে হ্যারিকেন স্যালির তাণ্ডব-সিএনএন

 

ফ্লোরিডার পেন্সাকোলার উপকূলীয় এলাকাগুলো দেড় মিটার পানির নিচে তলিয়ে গেছে। রাস্তা ও সেতু ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। ঝড়ের কারণে বিশাল বিশাল ওক গাছ উপড়ে পড়ে বৈদ্যুতিক তার ছিঁড়ে গেছে, এতে পেন্সাকোলা ও আশপাশের ৫ লাখেরও বেশি বাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বিদ্যুৎবিহীন হয়ে পড়েছে।

ফ্লোরিডার পেন্সাকোলার দমকল বাহিনীর প্রধান জিনি ক্র্যানর জানান, ঝড়টি চার ঘণ্টার মধ্যে চার মাসের বৃষ্টিপাত নিয়ে এসেছে।

পেন্সাকোলা বে ব্রিজ যা ‘থ্রি মাইল ব্রিজ’ নামেও পরিচিত, এর ‘বড় একটি অংশ’ ভেসে গেছে বলে এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন ফ্লোরিডার গভর্নর রন ডিসান্টিস।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *