বিপর্যস্ত আলাবামা-ফ্লোরিডা। হ্যারিকেন ‘স্যালি’র আঘাত।

যুক্তরাষ্ট্রের আলাবামা ও ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যে ‘এ’ ক্যাটাগরির ঘূর্ণিঝড় স্যালি আঘাত হেনেছে। স্থানীয় সময় বুধবার সকালে বয়ে যাওয়া এই ঘূর্ণিঝড়ে পানি বৃদ্ধির পাশাপাশি বিদ্যুৎ বিপর্যয় ঘটেছে, গাছপালা উপড়ে গেছে। সেখানে আকস্মিক বন্যার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়, সৃষ্ট এই ঘূর্ণিঝড়ের ফলে দুটো অঙ্গরাজ্যেই রাস্তাঘাট পানিতে তলিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। আলবামা উপসাগরীয় উপকূলে ঘরবাড়ি প্লাবিত হয়েছে, গাছপালা ভেঙেচুরে বিভিন্ন ছাদে গিয়ে পড়েছে। ফ্লোরিডার পেনসাকোলা সমুদ্র সৈকত এলাকায় বিদ্যুতের ট্রান্সফরমারগুলো বিস্ফোরিত হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় স্যালির আঘাতে আলাবামা ও ফ্লোরিডা উপকূলের পাঁচ লাখের বেশি মানুষ বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় আবহাওয়া দপ্তর সতর্ক করেছে যে, ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী প্রভাব হিসেবে এসব অঞ্চলে আকস্মিক বন্যা হতে পারে—যা মানুষের জীবন ও সম্পদের জন্য বিপর্যয় ডেকে আনতে পারে। আবহাওয়া পূর্বাভাসকারীরা বলছেন, আলাবামা ও ফ্লোরিডায় ১০ থেকে ৩৫ ইঞ্চি পর্যন্ত বৃষ্টিপাত হওয়ার সম্ভাবনা আছে। এই ঝড়ের গতি বুধবারের মধ্যেই কমে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। তবে এর কারণে বিপর্যয়কর বন্যা হওয়া সম্ভব। এই ঝড়ের ফলে মধ্য আলাবামা ও জর্জিয়ায় ৪ থেকে ১২ ইঞ্চি বৃষ্টি হতে পারে। এসব স্থানেও আকস্মিক বন্যা হতে পারে। এ ছাড়া সপ্তাহান্তে ক্যারোলিনা অঙ্গরাজ্যের কিছু অংশে ৪ থেকে ৯ ইঞ্চি পর্যন্ত বৃষ্টি হতে পারে। প্রসঙ্গত, বাতাসের গতির বিবেচনায় যুক্তরাষ্ট্রে ঘূর্ণিঝড়কে পাঁচ ভাগে ভাগ করা হয়ে থাকে। এর মধ্যে ঘণ্টায় বাতাসের গতিবেগ ১১৯ থেকে ১৫৩ কিলোমিটারের মধ্যকার ঘূর্ণিঝড়কে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে ফেলা হয়। ক্যাটাগরির সর্বোচ্চ মাত্রা ৫—ঘণ্টায় যার বাতাসের গতিবেগ ২৫২ কিলোমিটারের ওপরে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

9 + 7 =

Translate »