ফিলিস্তিনি জনগনের পাশে থাকার অঙ্গীকার করেছেন সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ

অনলাইনে মন্ত্রীপরিষদের এক বিশেষ সভায় সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ এ কথা বলেন।
ইসরাইলের সঙ্গে আমিরাত এবং বাহরাইন কূটনৈতিক সম্পর্ক স্বাভাবিকরণের পর সৌদি আরবও শীঘ্রই একই পথে হাঁটবে এমন আভাস দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তার মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় বিষয়টি স্পষ্ট করলে রিয়াদ।সেই সঙ্গে ওই অঞ্চলের শান্তি, শৃঙ্খলা ও স্থিতিশীলতায় বিনষ্ট করে এমন কোনো অপচেষ্টাকেও বরদাশত করা হবে না বলে কঠোর বার্তা দেয় সৌদি মন্ত্রিসভা। ফিলিস্তিনি জনগণের পাশে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সৌদি মন্ত্রিপরিষদ।

বৈঠকে মন্ত্রীরা তাদের অতীত ইতিহাস স্মরণ করে দিয়ে বলেন, ফিলিস্তিন ইস্যুতে সৌদি আরব সবসময় ন্যায়বিচারের পক্ষে ছিল। ফলে ১৯৬৭ সালে ফিলিস্তিনের জনগণ পূর্ব জেরুজালেমকে কেন্দ্র করে সীমান্তবর্তী এলাকায় একটি স্বাধীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার সুযোগ পেয়েছিল।
মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকে আরও বলা হয়, ফিলিস্তিনিদের জন্য আমরা এমন একটি সমাধান চাই, যা আরব বিশ্বের শান্তি ও সংহতি রক্ষার পাশাপাশি আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী গ্রহণযোগ্য ও বিবেচিত হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × 4 =

Translate »