৮৬ বছরের বৃদ্ধাকে নির্জন স্থানে নিয়ে ধর্ষণ

৮৬ বছরের বৃদ্ধাকে নির্জন স্থানে নিয়ে ধর্ষণের ঘটনায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে ভারতে। দেশটিরসহ আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গণমাধ্যমে এ খবর ফলাও করে প্রকাশিত হয়েছে। সংবাদামাধ্যমগুলো জানিয়েছে, গত ৮ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় দক্ষিণ-পশ্চিম দিল্লির ছাওলায় ওই ঘটনা ঘটে। গ্রেফতার হওয়া যুবকের বয়স ৩০ বছর।

দিল্লি কমিশন ফর উইমেন-এর প্রধান স্বাতি মালিওয়াল বিবিসি’কে বলেন, সোমবার সন্ধ্যার দিকে ওই বৃদ্ধা তার বাড়ির বাইরে দুধওয়ালার জন্য অপেক্ষা করছিলেন। সে সময় এক যুবক বৃদ্ধাকে বলেন, “আজ দুধওয়ালা আসবে না। অমুক জায়গায় গেলে দুধ পাওয়া যেতে পারে।” বৃদ্ধা যুবকের কথা বিশ্বাস করে তার সঙ্গে রওয়ানা হয় বলে জানান স্বাতি। “এরপর ওই যুবক কাছের একটি খামারে নিয়ে গিয়ে বৃদ্ধাকে ধর্ষণ করে।
ঘটনার সময় বৃদ্ধা অনেক অনুনয়-বিনয় করে তাকে ছেড়ে দিতে বলেন। ধর্ষককে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘তুমি আমার নাতির বয়সী।’ কিন্তু বৃদ্ধার কোনো কথাই সেই ধর্ষক শুনেনি। বাধা দিতে গেলে বৃদ্ধাকে নির্মমভাবে নির্যাতন করে ওই ধর্ষক।
স্থানীয় কয়েকজন গ্রামবাসী খামারের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় বৃদ্ধার চিৎকার শুনতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করে এবং অভিযুক্তকে পাকড়াও করে পুলিশে দেয়। বিবিসি জানায়, স্বাতি বৃদ্ধার অবস্থা দেখতে মঙ্গলবার ছাওলায় তার বাড়িতে গিয়েছিলেন। বৃদ্ধার শারীরিক ও মানসিক অবস্থা দেখে তার ‘হৃদয় ভেঙে গেছে’ বলে জানান স্বাতি।

স্বাতি ধর্ষণকের মৃত্যুদণ্ড দাবি করে ক্ষোভের সঙ্গে বলেন, আমি দিল্লি হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি এবং নগরীর লেফ্টেন্যান্ট-গভর্ণরকে চিঠি লিখে মামলাটির দ্রুত বিচার করার অনুরোধ জানাতে যাচ্ছি। যাতে ছয় মাসের মধ্যে তার ফাঁসি হয়।

ভারতে প্রতি বছর গড়ে ৩৫ হাজার ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। দেশটিতে নথিভুক্ত ছাড়াও কয়েক হাজার ধর্ষণের ঘটনা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × 5 =

Translate »