জোরে কথা বললেও করোনা ছড়াতে পারে

করোনা প্রটোকল মেনেই বসেছে ভারতের হিমাচলপ্রদেশ বিধানসভার অধিবেশন। সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিংয়ের পাশাপাশি মানা হচ্ছে অন্যান্য সতর্কতাও। তবে তার থেকেও সতর্ক বিধানসভার স্পিকার।

মঙ্গলবার বিধানসভা অধিবেশনের শুরুতে স্পিকার বিপিন সিং পারমার বিধায়করদের উদ্দেশ্য বললেন, ‘স্ট্যান্ডার্ড অপরেটির প্রসিডিওর অনুযায়ী জোরে কথা বললেও করোনাভাইরাস ছড়াতে পারে। তাই সাধারণ ভাবে কথা বলুন। এতে করোনা সংক্রমণ হবে না।’ স্পিকারের কথা শুনে হাসির রোল উঠল বিধানসভায়।

করোনা সংক্রমণ নিয়ে চাপে রয়েছে হিমাচলপ্রদেশ। ইতিমধ্যেই করোনা পজিটিভ হয়েছেন রাজ্যের বিজেপি বিধায়ক রীতা দেবী। এনিয়ে শোরগোল শুরু হয়েছে। তবে তিনি জানিয়েছেন করোনা টেস্টের আগে তিনি অধিবেশনে যোগ দিয়েছিলেন। সোশ্যাল ডিস্ট্যানসিংও বজায় রেখে চলেছিলেন।

রাজ্যের বেশ কয়েকজন বিধায়ক করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তাই আরও উদ্বিগ্ন স্পিকার বিপিন পারমার। সোম ও মঙ্গলবার অধিবেশনে যোগ দেন রাজ্যের বিদ্যুত্ মন্ত্রী শুখরাম চৌধুরি। সম্প্রতি তিনি করোনা জয় করে ফিরেছেন। এছাডা়ও করোনা আক্রান্ত হয়েছে রাজ্য মন্ত্রী মহেন্দ্র সিং ঠাকুর, বিধায়ক লখিন্দর সিং রানা।

করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে স্পিকার বিপিন পারমার বিধায়কদের কাছে আবেদন করেছেন, যাদের ইনফ্লুয়েঞ্জার মতো কোনও উপসর্গ রয়েছে তারা ঘরেই থাকুন। বিধানসভা ভবনে ঢোকার আগে শরীরের তাপমাত্র পরীক্ষা করে নিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

14 − one =

Translate »