সীমান্তে চক্কর কাটছে ভারতীয় যুদ্ধবিমান

রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে দু’দেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর মধ্যে প্রায় আড়াই ঘণ্টা ধরে বৈঠক চলার পরও মেলেনি সমাধান। বরং তারপর থেকে উত্তেজনা আরও বেড়েছে। বেড়েছে একে অপরকে হুঁশিয়ারি দেওয়ার ঘটনাও।

পরিস্থিতি দেখে ভারত ও চীনের মধ্যে যুদ্ধের সম্ভাবনা ক্রমশ বাড়ছে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করছেন বিশেষজ্ঞরা। গত ২ দিন ধরে তার প্রমাণ মিলছে লাদাখ সীমান্তেও।

একদিকে যখন সীমান্তের ওপারে থাকা মলডোয় চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মির ক্যাম্পের সংখ্যা বাড়ছে। অন্যদিকে তখন চীনা বাহিনীর ওপর নজরদারি চালানোর জন্য লাদাখ সীমান্তে বাড়ানো হচ্ছে ভারতীয় সেনা সদস্যদের সংখ্যা।

 

চীনা সেনা বাহিনী মলডোয় ক্যাম্পের সংখ্যা বাড়াচ্ছে। গোয়েন্দা সূত্রে এই খবর পাওয়ার পরই লেহ সীমান্তে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। রবিবার সকাল থেকেই ভারতীয় বিমান বাহিনীর বিমানগুলোকে কয়েক ঘণ্টা পর পর লাদাখের দিকে উড়তে দেখা যাচ্ছে। সীমান্তে চীনের সেনাদের বিরুদ্ধে যারা কর্তব্যরত রয়েছেন তাদের কাছে বিভিন্ন জিনিস সরবরাহ করা হচ্ছে। ভারতের বিভিন্ন জায়গা থেকে সেনা সদস্যদের লাদাখে পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে বলেও খবর পাওয়া গেছে।

আরও জানা গেছে, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় থাকা প্যাংগং সো এলাকার উত্তর ও দক্ষিণ অংশে প্রচুর সংখ্যক ভারতীয় সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। তারা ওই দুই প্রান্তের বিভিন্ন জায়গা থেকে মলডোয় বাড়তে থাকা চীনা বাহিনীর ক্যাম্পগুলোর ওপর লক্ষ্য রাখছেন। বারবার নজরদারি চালানো হচ্ছে আকাশপথেও।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 − ten =

Translate »