নিষেধাজ্ঞা উঠে গেলে অস্ত্র রপ্তানি করবে ইরান

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আমির হাতামি বলেছেন, তার দেশের ওপর থেকে জাতিসংঘের অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা উঠে গেলে তেহরান অস্ত্র রপ্তানি শুরু করবে। আগামী অক্টোবর মাসে ইরানের ওপর থেকে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার কথা রয়েছে।

তেহরান থেকে প্রকাশিত একটি সংবাদপত্রকে দেয়া সাক্ষাৎকারে জেনারেল হাতামি আরো বলেন, বিশ্বের যেসব দেশ অস্ত্র তৈরির দিক দিয়ে শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে ইরান তার অন্যতম। দেশটির সামরিক চাহিদার শতকরা ৯০ ভাগ নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি করে থাকে বলে তিনি জানান।

জেনারেল আমির হাতামি জোর দিয়ে বলেন, “আমাদের যে পরিমাণ অস্ত্র আমদানি করতে হয় তার চেয়ে নিশ্চিতভাবে বেশি আমরা রপ্তানি করতে সক্ষম হব। অবশ্যই আমরা আমাদের বৈধ অধিকার ব্যবহার করব। যখন আমাদের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা উঠে যাবে তখন আমাদের মিত্রদের কাছে আমরা অস্ত্র রপ্তানি করব।”

ইরানের ফাতহুল মোবিন ক্ষেপণাস্ত্র

২০১৫ সালে ইরান ও ছয় জাতিগোষ্ঠীর মধ্যে যে পরমাণু সমঝোতা সই হয়েছিল। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে ২২৩১ নম্বর প্রস্তাব পাসের মধ্যদিয়ে সেই সমঝোতা অনুমোদন করা হয়। প্রস্তাবের একটি ধারায় বলা হয়েছে, ইরান যদি পরিপূর্ণভাবে সমঝোতা বাস্তবায়ন করে তাহলে পাঁচ বছর পর তেহরানের ওপর থেকে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা উঠে যাবে। সেই হিসেবে অক্টোবর মাসে ইরানের ওপর থেকে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার কথা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *