আরও এক বছর বার্সাতেই থাকছেন মেসি!

লিওনেল মেসির ভবিষ্যৎ নিয়ে বার্সেলোনার সঙ্গে আলোচনা শেষ করেছেন তার বাবা ও এজেন্ট হোর্হে মেসি। সেই আলোচনা ‘ফলপ্রসূ’ হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

সেই সঙ্গে তিনি ইঙ্গিতে জানিয়ে দিয়েছেন, আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড আগামী গ্রীষ্ম পর্যন্ত ক্যাম্প ন্যুয়েই থাকছেন।

 

বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) ছেলের ইচ্ছাপূরণ তথা ক্লাব ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে কথা বলতে কাতালুনিয়ায় হাজির হন মেসির বাবা। বোর্ডের সঙ্গে আলোচনায় বসার আগে সাংবাদিকরা তাকে পরিস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, ‘কিছুই জানি না’। এরপর বার্সা প্রেসিডেন্ট হোসে মারিয়া বার্তোমেউর সঙ্গে আলোচনায় বসেন তিনি।

ক্যাম্প ন্যু থেকে বের হয়ে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম ‘মিডিয়াসেট’কে মেসির বাবা ও এজেন্ট জানান, আলোচনা ভালোভাবে শেষ হয়েছে। এরপর মেসি বার্সায় ২০২১ সালের গ্রীষ্ম পর্যন্ত থেকে যাবেন কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ’। যদিও মেসির ঘনিষ্ঠজনদের কেউ কেউ দাবি করেছেন, উত্তরটা ছিল আসলে ‘আমি জানি না’।

মেসি তার সিনিয়র ক্লাব ক্যারিয়ারের পুরোটাই বার্সায় কাটিয়েছেন। লা লিগা জায়ান্টদের হয়ে বহু শিরোপা আর রেকর্ড বগলদাবা করেছেন তিনি। কিন্তু চ্যাম্পিয়নস লিগের সর্বশেষ মৌসুমের কোয়ার্টার ফাইনালে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ৮-২ গোলে বিধ্বস্ত হয়ে বিদায় নেওয়ার পর সব পাল্টে গেছে।

ক্যারিয়ারের শেষ প্রান্তে পৌঁছে যাওয়া মেসি আরও কিছু শিরোপা জিততে চান। কিন্তু বার্সার বর্তমান দল সেই স্বপ্ন পূরণ করার যোগ্য নয়। তাছাড়া ক্লাবের সঙ্গে বনিবনাও হচ্ছে না আগের মতো। ক্লাবও পরোক্ষভাবে তার বিরুদ্ধে কুৎসা রটনা করা শুরু করে দিয়েছিল। সবমিলিয়ে গত মঙ্গলবার বুরোফ্যাক্সের মাধ্যমে ২০ বছরের বন্ধন ছিন্ন করার সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেন তিনি।

রেকর্ড ছয়টি ব্যালন ডি’অরের মালিক আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের সঙ্গে চুক্তির দৌড়ে সবার আগে আছে ম্যানচেস্টার সিটি এবং ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবটির ব্যাপারে ইতোমধ্যে মেসি আগ্রহীও। তবে মেসি এবং বার্সার মধ্যে চুক্তির রিলিজ ক্লজ নিয়ে বাদানুবাদ হচ্ছে এবং তিনি যদি ফ্রি ট্রান্সফারে ক্যাম্প ন্যু ছাড়তে না পারেন তবে সিটিকে বাই-আউট ক্লজ অনুযায়ী ৭০০ মিলিয়ন ইউরো (৬২২ মিলিয়ন পাউন্ড) পরিশোধ করতে হবে কাতালানদের।

বার্সা এখনও দাবি করছে, মেসি বিক্রির জন্য নন এবং তার সঙ্গে নতুন চুক্তি স্বাক্ষর ছাড়া কোনো আলোচনা হবে না। কিন্তু মেসি তার সিদ্ধান্তে অটল। এরইমধ্যে প্রাক-মৌসুমকে সামনে রেখে দলের অনুশীলনে হাজির হননি তিনি। এর আগে ক্লাবের বাধ্যতামূলক করোনা টেস্টও করাননি তিনি। এজন্য তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার হুমকিও দিয়েছে বার্সা। তবে সবাই জানে এখন চাইলে অন্য কোনো ক্লাবের সঙ্গে চুক্তি সেরে রাখতে পারেন মেসি। ফলে পরের মৌসুমে তিনি বিনা ট্রান্সফার ফি’তে চলে যেতে পারবেন।

তবে মেসির আইনজীবীরা হাল ছেড়ে দেওয়ার পাত্র নন। এরইমধ্যে তারা রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে ১০০ মিলিয়ন ইউরো ট্রান্সফার ফি’তে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর জুভেন্টাসে যোগ দেওয়ার উদাহরণ দেখিয়ে মেসির ক্ষেত্রেও একই বিষয় সামনে আনছেন। এছাড়া করোনা মহামারির কারণে ক্লাবের আর্থিক দৈন্য, দলবদলে এর প্রভাব, মেসির বিশাল অংকের বেতন দেওয়া থেকে মুক্তি মিলিয়ে বার্সার জন্য এই সওদা লাভজনক হবে বলেই মত তাদের। এখন দেখার বিষয় মেসির বাবার সঙ্গে বার্সার আলোচনার ফল কি দাঁড়ায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *