সংসদ প্লাজায় জানাজা ছাড়াই শেষ ঠিকানায় ৫ এমপি

এ বছরের আগস্ট পর্যন্ত ৮ জন সংসদ সদস্য মারা গেছেন।  করোনাভাইরাসের কারণে তাদের সংসদ প্লাজায় জানাজা হয়নি।

সংসদ সূত্র জানায়, গত ১০ জানুয়ারি আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য মোজাম্মেল হোসেন (বাগেরহাট-৪), ১৮ জানুয়ারি আব্দুল মান্নান (বগুড়া-১), ২১ জানুয়ারি ইসমাত আরা সাদেক (যশোর-৬), ২ এপ্রিল সাবেক ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ (পাবনা-৪), ৬ মে হাবিবুর রহমান মোল্লা (ঢাকা-৫) মারা যান।  করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১৩ জুন সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম (সিরাজগঞ্জ-১), ১০ জুলাই সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন (ঢাকা-১৮) ও করোনায় আক্রান্ত হয়ে ২৭ জুলাই ইসরাফিল আলম (নওগাঁ-৬) মারা যান।

সংসদের নিয়ম অনুযায়ী সংসদ ভবনে সাবেক ও বর্তমান সংসদ সদস্যদের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।  গত জানুয়ারির পর মারা যাওয়া কোনো সংসদ সদস্যের রীতি অনুযায়ী সংসদ ভবনে জানাজা হয়নি।  বর্তমান সংসদ সদস্য মারা গেলে সংসদে অনুষ্ঠিত জানাজায় রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার ছাড়াও নিজ নিজ দলের পক্ষ থেকে মরদেহে শ্রদ্ধা জানানো হয়। বীর মুক্তিযোদ্ধা হলে দেওয়া হয় গার্ড অব অর্নার।  জানাজায় সহকর্মীরা ছাড়াও সংসদে কর্মরত ও আশপাশ এলাকায় বসবাসকারীরা অংশ নেন।  করোনার কারণে পাঁচজন এমপির জানাজা সংসদ প্লাজায় হয়নি।

বাজেট অধিবেশনে (জুন ২০২০) সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, এ বছর আমাদের বেশ কয়েকজন সংসদ সদস্য মৃত্যুবরণ করেছেন, যা খুব দুঃখজনক।  এভাবে সবাইকে হারানো আমার জন্য খুব কষ্টকর।

করোনায় সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম ও ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আবদুল্লাহ (এমপি নন) মারা যাওয়ায় সংসদে আনীত শোক প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন প্রধানমন্ত্রী।

জাতীয় সংসদের জনসংযোগ শাখার পরিচালক তারেক মাহমুদ বলেন, বর্তমান ও সাবেক সংসদ সদস্যদের মৃত্যুর পর সংসদ ভবনে জানাজার রেওয়াজ থাকলেও করোনা পরিস্থিতির কারণে সংসদ ভবনে সাবেক মন্ত্রী ও সংসদ সদস্য শামসুর রহমান শরীফ ও মো. নাসিমসহ কয়েকজন এমপির জানাজা হয়নি।  জনসমাগম এড়াতে সংসদের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ এ সিদ্ধান্ত নেয়।

সাবেক মন্ত্রী প্রয়াত মোহাম্মদ নাসিমের ছেলে তানভীর শাকিল জয় বলেন, বর্তমান ও সাবেক সংসদ সদস্যদের মৃত্যুর পর সংসদ ভবনে জানাজার রীতি রয়েছে।  রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার ছাড়াও নিজ নিজ দলের পক্ষ থেকে মরদেহে শ্রদ্ধা জানানো হয়।  করোনাভাইরাসের কারণে এ শ্রদ্ধা থেকে বাবা ও কয়েকজন সংসদ সদস্য বঞ্চিত হয়েছেন।

ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া বলেন, বর্তমান ও সাবেক সংসদ সদস্যদের মৃত্যুর পর সংসদ ভবনে জানাজার রেওয়াজ থাকলেও করোনার কারণে তা সম্ভব হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nine − three =

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Translate »