বিএনপির দুই পক্ষের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ায় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান পণ্ড

দিনাজপুরের খানসামায় বিবদমান দুই পক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষে পণ্ড হয়েছে বিএনপির ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান। পরে পুলিশ এসে দুই পক্ষকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। মঙ্গলবার বেলা ১১টায় খানসামা উপজেলার পাকেরহাট বাইপাস এলাকায় চৌধুরী রাইস মিল চত্বরে এ ঘটনা ঘটে। দলটির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি।

মঙ্গলবার আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিএনপির অপর একটি পক্ষ অনুষ্ঠানস্থলে এসে তাদের ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা চালায়। এতে আহ্বায়ক কমিটির সদস্যরা বাধা দিতে গেলে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পণ্ড হয়ে হয়ে যায় পুরো অনুষ্ঠান। পরে পুলিশ এসে দুই পক্ষকে ছত্রভঙ্গ করে। পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, একজন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। পরে পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হলে দু’পক্ষের নেতাকর্মীরা পৃথকভাবে স্বল্প পরিসরে দোয়া মাহফিলের মাধ্যমে বিএনপির ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করে।

উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক রবিউল আলম তুহিন জানান, আহ্বায়ক কমিটির ১ নম্বর যুগ্ম আহ্বায়ক মিজানুর রহমান চৌধুরীকে আমরা কোনোভাবেই মানি না। তিনি দলের নতুন সদস্য হয়েও টাকার বিনিময়ে দলের ১নম্বর যুগ্ম আহ্বায়কের পদটি বাগিয়ে নেন। এতে দীর্ঘদিন ধরে দলের জন্য নির্যাতিত নেতাকর্মীরা আহ্বায়ক কমিটির প্রতি অনাস্থা জ্ঞাপন করে আসছিলেন।

এদিকে মিজানুর রহমান চৌধুরী এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, টাকা দিয়ে কখনোই রাজনীতি হয় না। মানুষের ভালোবাসায় দল আমাকে পদ দিয়েছে।

আহবায়ক কমিটির আহবায়ক মোঃ আমিনুল হক চৌধুরী বলেন, দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গে দায়িদের বিরুদ্ধে দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী জেলা ও কেন্দ্রে বিষয়টি লিখিত আকারে জানাব।

এ বিষয়ে খানসামা থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ কামাল হোসেন জানান, এ বিষয়ে যদি কেউ অভিযোগ করলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, খানসামা উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি নিয়ে পূর্ব থেকেই কমিটির একটি পক্ষ আহ্বায়ক কমিটিকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করে আসছিলেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eleven + eleven =

Translate »