গণপরিবহনে ফিরেছে আগের চিত্র, সুরক্ষিত থাকতে মেনে চলুন এসব

বিশ্বজুড়ে মহামারি রূপে তাণ্ডব চালাচ্ছে করোনাভাইরাস। প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে দীর্ঘ হচ্ছে মৃত্যুর তালিকা। প্রতিরোধের একমাত্র উপায় শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা। কয়েক মাস ধরে লক ডাউনে থাকার পর এখন সব কিছু স্বাভাবিক হয়ে এসেছে। বাসসহ পাবলিক ট্রান্সপোর্টগুলোতে দেখা যাচ্ছে আগের চিত্র।

এতে করে বাড়ছে রোগ ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি। বেশিরভাগ মানুষ কর্মক্ষেত্রে যাওয়ার জন্য সবচেয়ে বেশি নির্ভর করে গণপরিবহনের ওপর।  বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, ঘেঁষাঘেঁষি করে গণপরিবহনে যাতায়াতের ফলে ড্রপলেটের মাধ্যমে ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা অন্যান্য জায়গার তুলনায় ২০ থেকে ৩০ গুণ বেশি।

তাই গণপরিবহনে উঠলে মেনে চলতে হবে কিছু স্বাস্থ্যবিধি। সচেতনতাই এখন একমাত্র রক্ষাকবচ। তাই সুস্থ থাকতে কিছু বিষয় আপনাকে মানতেই হবে। জেনে রাখুন সেগুলো-

> খুব ভিড় বাসে উঠবেন না। এক্ষেত্রে হাতে যথেষ্ট সময় নিয়ে বের হন। নির্দিষ্ট দূরত্বে লাইন দিয়ে বাসে উঠবেন। চেষ্টা করবেন, জানলার কাছে বসতে। এতে বাইরের বাতাসে শ্বাস নেয়া যায়।

> যদি কাজের জায়গা খুব বেশি দূরত্বে না হয় তবে হেঁটেই যাওয়ার চেষ্টা করুন। তাতে শরীরচর্চা হবে আবার সংক্রমণও এড়াতে পারবেন।

> মাস্ক ছাড়া একেবারেই বের হবেন না। তিন স্তরীয় মাস্ক পরার চেষ্টা করুন। হাতে বানানো কাপড়ের মাস্ক হলে তা যেন তিন স্তরবিশিষ্ট হয়। সার্জিকেল মাস্কও পরতে পারেন। এতে ড্রপলেট থেকে সহজে সংক্রমিত হওয়ার ঝুঁকি থাকে না।

> বাস বা ট্রেনে যাওয়ার সময় ফেস শিল্ড ব্যবহার করতে পারলে খুবই ভালো হয়।

কোনো অবস্থাতেই নাকে, মুখে বা চোখে হাত দেবেন না। একান্ত দিতেই হলে হাত সাবান দিয়ে ধুয়ে তারপর হাত দিন। এরপর আবার সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে নিন।

> ব্যাগে হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখতে ভুলবেন না। একটু পর পর হাত স্যানিটাইজার দিয়ে পরিষ্কার করে নিন। হাতে গ্লাভস ব্যবহার করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *