ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলাকারীর আমৃত্যু কারাদণ্ড

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দু’টি মসজিদে হামলা করে ৫১ জনকে হত্যার দায়ে হামলাকারী ব্রেনটন ট্যারেন্টকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির আদালত। তার প্যারোলের কোনো সুযোগ থাকছে না অর্থাৎ তাকে আমৃত্যু কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে, যা নিউজিল্যান্ডের ইতিহাসে প্রথম।

বৃহস্পতিবার (২৭ আগস্ট) বিবিসি এ তথ্য জানায়।

এর আগে ২৯ বছর বয়সী অস্ট্রেলিয়ান নাগরিক ব্রেনটন ট্যারেন্ট ৫১ জনকে হত্যা ও আরও ৪০ জনকে হত্যাচেষ্টা এবং সন্ত্রাসবাদের অভিযোগে আদালতে নিজের দোষ স্বীকার করেন।

বিচারক তার কর্মকাণ্ডকে ‘বর্বর’ উল্লেখ করে বলেন, ‘তিনি (ব্রেনটন) কোনো সহানুভূতি দেখাননি। ’

গত বছরের ১৫ মার্চ শুক্রবার জুমার নামাজের সময় ক্রাইস্টচার্চের আল নূর এবং লিন্ডউড মসজিদে হামলা চালান ব্রেনটন। তিনি স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র দিয়ে নির্বিচারে গুলি ছুড়ে এ হত্যাযজ্ঞ চালান, যা ৫১ জনের প্রাণ কেড়ে নেয়। হামলার সম্পূর্ণ ঘটনা ফেসবুকের মাধ্যমে সরাসরি সম্প্রচার করেন তিনি, যা গোটা বিশ্বকে হতবাক করে দেয়।

বৃহস্পতিবার ক্রাইস্টচার্চ আদালতের বিচারক ক্যামেরন ম্যানডের বলেন, ‘ব্রেনটনের অপরাধ এতই জঘন্য যে আমৃত্যু কারাগারে থাকলেও তার শাস্তি যথেষ্ট হবে না। ’

.ক্রাইস্টচার্চের দুই মসজিদে হামলাকারী ব্রেনটন ট্যারেন্ট

তবে আমৃত্যু কারাদণ্ডের বিরুদ্ধে কোনো মন্তব্য করেননি হামলাকারী শেতাঙ্গ আধিপত্যবাদী ব্রেনটন। এর আগেই ব্রেনটন জানিয়েছেন, আদালতে তিনি কোনো কথা বলবেন না।

অন্যদিকে, এ হামলার ঘটনার এক মাসের মধ্যে নিউজিল্যান্ড সামরিক ধাঁচের আধা স্বয়ংক্রিয় সব ধরনের আগ্নেয়াস্ত্র নিষিদ্ধ ঘোষণা করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *