সোনার দাম কমল

বাড়তে বাড়তে চূড়ায় ওঠার পর সোনার দাম কমেছে।

বৃহস্পতিবার থেকে দেশের বাজারে সব ধরনের সোনা ৩ হাজার ৪৯৯ টাকা কমে বিক্রি হবে জানিয়েছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি-বাজুস।

আন্তর্জাতিক বাজারে দর কিছুটা নিম্নমুখী হওয়ায় স্থানীয় বাজারে দর কমানোর ইঙ্গিত একদিন আগেই দিয়েছিলেন বাজুস সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার আগরওয়ালা।

বুধবার তার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়ার পর তিনি বলেন, “গত তিন-চার দিন আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের দাম খুব উঠা-নামা করছে। একবার কমছে, তো আবার বাড়ছে। একেবারেই অস্থির হয়ে উঠেছে বাজার।

“আমরা এই করোনাভাইরাস মহামারীকালে আমাদের ক্রেতাদের ধরে রাখতেই এবার গোল্ডের দাম কমিয়েছি। এখানে আমরা আমাদের লাভ-ক্ষতির বিষয়টি বিবেচনায় না নিয়ে ক্রেতাদের বাজারমুখী করতে দাম কমিয়েছি।”

বৃহস্পতিবার থেকে সবচেয়ে ভালো মানের (২২ ক্যারেট) প্রতি ভরি (১১.৬৬৪ গ্রাম) সোনার গহনা ৭৩ হাজার ৭১৬ টাকায় বিক্রি হবে। এছাড়া ২১ ক্যারেটের গহনা কিনতে লাগবে ৭০ হাজার ৫৬৭ টাকা। ১৮ ক্যারেটের সোনার অলংকারের জন্য লাগবে ৬১ হাজার ৮১৯ টাকা। আর সনাতন পদ্ধতির এক ভরি সোনার গহনা কিনতে ৫১ হাজার ৪৯৭ টাকা লাগবে।

বুধবার পর্যন্ত প্রতি ভরি ২২ ক্যারেট সোনা ৭৭ হাজার ২১৬ টাকা, ২১ ক্যারেট ৭৪ হাজার ৬৭ টাকা, ১৮ ক্যারেট ৬৫ হাজার ৩১৯ টাকায় এবং সনাতন পদ্ধতির সোনা বিক্রি হয়েছে ৫৪ হাজার ৯৯৬ টাকায়।

বাজুসের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, “বৈশ্বিক স্থবিরতা, ডলার ও তেলের দরপতন, আন্তর্জাতিক স্বর্ণবাজারে নজিরবিহীন উত্থান-পতন সত্বেও দেশীয় স্বর্ণ বাজারের মন্দাভাব ও ভোক্তা সাধারণের কথা চিন্তা করে প্রতিকূল পরিস্থিতিতেও সোনার দাম কমানো হয়েছে।”

Leave a Reply

Your email address will not be published.