বিতর্কিত নির্বাচনে উত্তাল বেলারুশ

বিতর্কিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচন কেন্দ্র করে পূর্ব ইউরোপের দেশ বেলারুশের রাজধানী মিনস্কে মঙ্গলবার দ্বিতীয় রাতের মতো বিক্ষোভ করেছেন দেশটির হাজার হাজার মানুষ। এ সময় বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পুলিশ।

দেশটির সরকারি কর্মকর্তারা বলেছেন, হাতে রাখা বিস্ফোরক ডিভাইসের বিস্ফোরণে এক বিক্ষোভকারী মারা গেছেন। রোববার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পর দেশটিতে শুরু হওয়া নজিরবিহীন এই বিক্ষোভে প্রথম প্রাণহানির ঘটনা এটি।

নির্বাচনে দেশটির স্বৈরশাসক প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কো ৮০ শতাংশ ভোট পেয়ে পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন। তবে দেশটির বিরোধীদলীয় সভেতলানা তিখানোভস্কায়া এই নির্বাচনের ফল প্রত্যাখ্যান করেছেন। নিজেকে প্রকৃত জয়ী হিসেবে দাবি করেছেন সভেতলানা।

belarush.jpg

বেলারুশের এই নির্বাচন নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা রয়েছে। দেশটিতে নির্বাচনী কোনও পর্যবেক্ষক ছিল না। প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কোকে বিজয়ী করতে ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ এনে বিরোধীরা টানা বিক্ষোভ করছেন।

লুকাশেঙ্কোর দীর্ঘ শাসনে ক্রমবর্ধমান হতাশার মাঝে রোববারের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিরোধী দলের সমাবেশে ব্যাপক জনসমাগম দেখা যায়। কিন্তু ভোটের দিনে সাংবাদিক ও কর্মীদের বিরুদ্ধে ব্যাপক কঠোর অভিযান শুরু করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এতে নিরাপত্তাবাহিনীর হাতে শত শত মানুষ গ্রেফতার হন।

belarush.jpg

১৯৯৪ সাল থেকে ক্ষমতায় থাকা লুকাশেঙ্কো বিরোধীদলীয় সমর্থকদের ‘ভেড়া’ বলে মন্তব্য করেছেন। তিনি বলেছেন, বিরোধী সমর্থকদের বিদেশ থেকে নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে। দেশকে ধ্বংস করার কোনও সুযোগ দেয়া হবে না বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।

নির্বাচনের তথ্য বলছে, ৮০ দশমিক ২৩ শতাংশ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন লুকাশেঙ্কো। অন্যদিকে, তার প্রধান বিরোধী সভেতলানা তিখানোভস্কায়া পেয়েছেন ৯ দশমিক ৯ শতাংশ ভোট।

সূত্র: বিবিসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *