ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ফেসবুক-টুইটারের ব্যবস্থা

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের নীতিমালা লঙ্ঘন করায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের একটি পোস্ট সরিয়ে দিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। একই কারণে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে টুইটারও।

ফেসবুক ও টুইটারে গতকাল বুধবার ডোনাল্ড ট্রাম্পের একটি পোস্টে মার্কিন সংবাদমাধ্যম ফক্স নিউজকে তাঁর দেওয়া একটি সাক্ষাৎকার যুক্ত ছিল। ওই সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প দাবি করেছেন, ‘শিশুদের মধ্যে কোভিড-১৯ প্রতিরোধের ক্ষমতা রয়েছে।’

এরপর এক বিবৃতিতে ফেসবুকের পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘ওই ভিডিওতে মিথ্যা তথ্য দেওয়া হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, একদল মানুষ কোভিড-১৯ থেকে সুরক্ষিত। ফেসবুকে করোনাভাইরাস সম্পর্কিত ভুল তথ্য দেওয়ার ব্যাপারে আমাদের যে নীতিমালা রয়েছে, এটি তার লঙ্ঘন।’

নীতিমালা ভঙ্গ করায় এই প্রথম মার্কিন প্রেসিডেন্টের করোনাভাইরাস সম্পর্কিত কোনো পোস্ট সরিয়ে দিল ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। তবে এর আগেও নীতিমালা ভঙ্গ করায় ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছিল ফেসবুক।

অন্যদিকে, এক বিবৃতিতে টুইটার কর্তৃপক্ষ ট্রাম্পকে উদ্দেশ করে বলেছে, ‘আপনি যে টুইটটি করেছেন, সেটি কোভিড-১৯ সম্পর্কিত ভুল তথ্যের ব্যাপারে টুইটারের নীতিমালার লঙ্ঘন। এ অ্যাকাউন্ট থেকে পরবর্তী সময়ে কোনো টুইট করতে হলে, আগে এই টুইটটি সরিয়ে ফেলতে হবে।’

গতকাল বুধবার প্রচারিত ফক্স নিউজকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প বলেছিলেন, ‘শিশুদের স্কুলে ফিরে যাওয়া উচিত, কারণ তারা করোনা থেকে অনেকটাই সুরক্ষিত, অথবা ভার্চুয়ালি সুরক্ষিত।’

তবে চিকিৎসকরা বলছেন, শিশুদের মধ্যে করোনার সংক্রমণ ঘটে এবং তারা করোনা ছড়িয়েও দিতে পারে। এ ছাড়া বিভিন্ন দেশের করোনা পরিস্থিতিতে দেখা যাচ্ছে, শিশুরাও করোনায় আক্রান্ত হচ্ছে এবং অনেক ক্ষেত্রে তাদের মৃত্যুও হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

fourteen + 20 =

Translate »