করোনা: অনিশ্চয়তায় রাজধানী ছাড়ছে মানুষ

মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে সমগ্র বিশ্বে দেখা দিয়েছে অর্থনৈতিক মন্দা। যার প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশেও। অনেকেই চাকরি হারিয়েছেন। কারো আবার কমে গেছে বেতন, কারো বন্ধ হয়েছে ব্যবসা। সর্বোপরি চরম এক অনিশ্চয়তা ভর করেছে ব্যাপক সংখ্যক মানুষের জীবনে। জীবনধারণে প্রয়োজনীয় অর্থের যোগান সৃষ্টি করতে না পারার গ্লানি নিয়ে তারাই এখন রাজধানী ছেড়ে বাধ্য হচ্ছেন গ্রামে ফিরতে।

ঢাকা-পাটুরিয়া মহাসড়কে রাজধানী ছেড়ে গ্রামমুখী মানুষের অসংখ্য চিত্র শুক্রবারও (২৬ জুন) দেখা যায়। ভাগ্য বিড়ম্বিত এসব ভুক্তভোগীর অনেকের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সবার গ্রামে ফিরে যাওয়ার কারণ প্রায় একইরকম।

সাভারে স্ত্রী ও দুই সন্তান নিয়ে বসবাস করা গৌতম কুমার শীল একটি কোম্পানিতে চাকরি করতেন। তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হলে প্রথম মাসে তাকে অর্ধেক বেতন দেওয়া হয়। তার পরের মাসে অর্ধেকের অর্ধেক বেতন দেওয়া হয়। এই টাকায় বাড়িভাড়া দেওয়ার পর পরিবার নিয়ে চলতে কষ্ট হচ্ছিল। ধার-দেনা করে এতদিন চললেও এখন পিঠ দেওয়ালে ঠেকে গেছে। তাই গ্রামের বাড়ি রাজবাড়ীর বেলগাছিতে ফিরে যাচ্ছেন।

ঢাকার মিরপুরের রূপনগরে বসবাস করতেন আশরাফ হোসেন। একটি কোম্পানিতে করতেন চালকের কাজ। এখন তার কাজ পুরোটাই বন্ধ। প্রতিমাসে ১১ হাজার টাকা বাড়ি ভাড়া দিতে হয়। কিন্তু এখন সেই পরিমাণ অর্থ উপার্জন করা প্রায় অসাধ্য হয়ে গেছে। তাই তিনিও পরিবার নিয়ে ফরিদপুরের আটরশিতে গ্রামের বাড়ি ফিরে যাচ্ছেন। গ্রামে থাকলে প্রতিমাসে বাড়ি ভাড়ার টাকা নিয়ে অন্তত দুশ্চিন্তা করতে হবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *