চীনের সঙ্গে ৫ হাজার কোটি রুপির তিন প্রকল্প স্থগিত করল ভারত

সাম্প্রতিক সীমান্ত উত্তেজনার প্রেক্ষিতে চীনা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি করা তিনটি প্রকল্প স্থগিত করেছে ভারতের মহারাষ্ট্র সরকার। এ প্রকল্পগুলোর সমন্বিত ব্যয় প্রায় পাঁচ হাজার কোটি রুপি।

মহারাষ্ট্রের শিল্পমন্ত্রী সুভাষ দেশাই জানান, কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে পরামর্শ করেই এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এসব চুক্তি লাদাখ সীমান্তে ২০ ভারতীয় সেনা হত্যার আগে করা হয়েছিল।

বিজ্ঞাপন

এছাড়া, ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় চীনা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে নতুন করে আর কোনও চুক্তি না করার নির্দেশ দিয়েছে বলেও জানান তিনি।

জানা গেছে, গত সোমবার অনলাইন কনফারেন্সে চীনা প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে এসব চুক্তি করেছিল মহারাষ্ট্র সরকার। এর মধ্যে রয়েছে পুনের কাছে তালেগাও এলাকায় ৩ হাজার ৭৭০ কোটি রুপি ব্যয়ে চীনের গ্রেট ওয়াল মোটরসের অটোমোবাইল প্ল্যান্ট স্থাপন, ভারতের পিএমআই ইলেক্ট্রো মোবিলিটির সঙ্গে যৌথভাবে চীনা গাড়িনির্মাতা ফোটনের এক হাজার কোটি রুপির নতুন ইউনিট স্থাপন এবং তালেগাও এলাকায় আরেক চীনা কোম্পানি হেংলি ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের দ্বিতীয় ধাপের কার্যক্রম বৃদ্ধি প্রক্রিয়ায় ২৫০ কোটি রুপি বিনিয়োগ।

বিজ্ঞাপন

এর মধ্যে ফোটনের নতুন ইউনিট স্থাপিত হলে দেড় হাজার এবং হেংলির বিনিয়োগে অন্তত দেড়শ’ নতুন চাকরির ক্ষেত্র তৈরি হতো বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে মহারাষ্ট্র সরকার।

লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় চীনের সঙ্গে সংঘর্ষের জেরে গত শুক্রবার সব দলের নেতাদের সঙ্গে জরুরি বৈঠকে বসেছিলেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সেখানে চীনের সঙ্গে সম্পর্ক রাখা না রাখা নিয়ে আলোচনা হয়েছিল বলে জানা গেছে। বৈঠকে মোদি বলেছিলেন, ‘ভারত শান্তি চায় মানে এটা নয় যে তারা দুর্বল। চীনের স্বভাবই হচ্ছে বেইমানি করা। কিন্তু ভারত অসহায় নয়।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *