কোরিয়ায় নাইটক্লাব থেকে যেভাবে ছড়াচ্ছে করোনা

দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিউলে বিভিন্ন নাইটক্লাবে যাতায়াতকারী কমপক্ষে ১০২ জন নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

লকডাউন শিথিল করার পরই নতুন এ আক্রান্তদের শনাক্ত করা হয়।ফলে সিউলের ইতাইওয়ন এলাকাকে ‘ক্লাস্টার আউটব্রেক’ বা গুচ্ছ সংক্রমণ এলাকা হিসেবে ঘোষণা করেছেন মেয়র পার্ক ওন।

বিবিসি জানিয়েছে, দক্ষিণ কোরিয়ায় গত কয়েকদিনে যতজন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন তাদের বেশিরভাগের সঙ্গেই নাইটক্লাবের সম্পৃক্ততা খুঁজে পাওয়া গেছে।

পার্ক ওন জানান, নাইটক্লাবে যাতায়াত করেছেন এমন ব্যক্তি এবং এসব ব্যক্তি যাদের সংস্পর্শে এসেছেন এমন ৭ হাজার ২৭২ জনের করোনার পরীক্ষা করা হয়েছে।

এরমধ্যেই দেশটিতে নতুন করে আতঙ্ক বাড়াচ্ছে উপসর্গহীন রোগীরা। ইতিমধ্যেই উপসর্গহীন রোগীর হার ৩৬ শতাংশের বেশি। এ সংখ্যা দ্রুত বাড়ছে।

গত সপ্তাহে ইতাওন নামের একটি নাইটক্লাবে গিয়েছিলেন প্রায় ১০ হাজার ৯০৫ জন। তাদের সবাইকে করোনা পরীক্ষা করতে বলা হয়েছে।

পার্ক ওন সতর্ক করে বলেছেন, দ্বিতীয় ধাপে সংক্রমণ আরও বেড়ে যেতে পারে।

সাম্প্রতিক সময়ে সংক্রমণের বিস্তার ঠেকাতে বিভিন্ন ক্লাব এবং বিনোদন কেন্দ্রে যাওয়া লোকজনকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হচ্ছে। দক্ষিণ কোরিয়ায় এ পর্যন্ত ১০ হাজার ৯৯৬ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ২৫৯ জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *