এটা অবিশ্বাস্য অর্জন: মেসি

পহেলা ডিসেম্বর ২০০৯। লিওনেল মেসির হাতে উঠল প্রথম ব্যালন ডি’অর। এরপর টানা তিনবার। দুই বছর পর পেলেন পঞ্চম সেরার পুরস্কার। তিন বছর পর, ২০১৯ সালে জিতলেন ষষ্ঠ ব্যালন ডি’অর।

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে ছাপিয়ে সর্বোচ্চ ব্যালন ডি’অর জয়ের রেকর্ড নিজের করে নিয়েছেন গ্রহের অন্যতম সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসি। নিজের অসমান্য অর্জনে উচ্ছ্বসিত বার্সেলোনার কিংবদন্তি। পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে লুকাননি নিজের আবেগ, অনুভূতি। কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন প্রিয় ক্লাব, সতীর্থ, কর্মকর্তা ও পরিবারকে। বার্সেলোনায় নিজের ক্যারিয়ার দীর্ঘায়িত করার আগ্রহও দেখিয়েছেন এ যাদুকর।

‘এটা (ব্যালন ডি’ অর) আমার জন্য বিশেষ অর্জন। যেসব সাংবাদিকরা আমাকে ভোট দিয়েছেন এবং চেয়েছেন যে আমি এই পুরস্কার জিতি, তাদের সবাইকে আমি ধন্যবাদ দিতে চাই। জীবনের এমন একটি মোড়ে আছি যেখানে আমি প্রত্যেকটি বিষয় উপভোগ করছি। মাঠে যেমন সময়টা ভালো কাটছে। মাঠের বাইরেও ভালো সময় যাচ্ছে। আমার পরিবার, আমার সন্তানদের নিয়ে সুখে আছি। এটা অবিশ্বাস্য অর্জন। সবাইকে অনেক অনেক ধন্যবাদ। আমাকে পুনরায় এ সম্মান দেওয়ার জন্য কৃতজ্ঞতা।’ – বলেছেন মেসি।

ক্যাম্প ন্যু নিয়ে নিজের আবেগ লুকাতে পারেননি অধিনায়ক মেসি,‘ক্লাব সংশ্লিষ্ট সবাই আমাকে চেনেন, আমাকে জানেন। প্রত্যেকেরই জানা আছে, আমাদের যে চুক্তি আছে তাতে কোনো সমস্যা নেই। একটি স্বাক্ষর বা কোনো ভূমিকার থেকেও ক্লাবের সঙ্গে আমার সম্পর্ক আরও গভীর, আমি এমনটাই অনুভব করি।’

‘৩২-এ পা দিয়ে আছি। ৩৩ ছোঁয়ার অপেক্ষায়। আমি এর আগেও বলেছি, শারীরিকভাবে ভালো অনুভব করলেই ক্যারিয়ার বড় হবে। তবে এখন শারীরিক এবং মানসিকভাবে নিজেকে অনেক চাঙা মনে হচ্ছে। আশা করছি নিজেকে আরও কিছুটা সময় আপনাদের সামনে মেলে ধরতে পারব।’ – যোগ করেন মেসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × 3 =

Translate »