‘আমাজনে আগুন দিতে অর্থ দিয়েছিলেন ডি ক্যাপ্রিও’

ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনেরো দাবি করেছেন, আমাজন বনাঞ্চলে আগুন লাগাতে হলিউড তারকা লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিও অর্থায়ন করেছিলেন। অবশ্য শুক্রবার এই দাবির পক্ষে কোনো প্রমাণ দেখাননি তিনি।

এর আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বোলসোনেরো বলেছিলেন, পরিবেশবাদী সংগঠন ওয়ার্ল্ড ওয়াইল্ডলাইফ (ডব্লিউডব্লিউএফ) আগুন নেভাতে কাজ করা স্বেচ্ছাসেবক অগ্নিনির্বাপকদের আমাজনের অগ্নিকাণ্ডের ছবির বিনিময়ে অর্থ দিয়েছিল। ওই ছবি তারা দাতাদের কাছ থেকে অর্থ নিতে কাজে লাগিয়েছিল। এর মধ্যে ডি ক্যাপ্রিওর চাঁদা হিসেবে পাঁচ লাখ ডলার অর্ন্তভূক্ত রয়েছে।

ডব্লিউডব্লিউএফ অবশ্য এ অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে। অগ্নিনির্বাপকদের কাছ থেকে ছবি নেওয়া এবং ডি ক্যাপ্রিওর কাছ থেকে চাঁদা নেওয়ার কথা অস্বীকার করেছে সংস্থাটি।

প্রেসিডেন্টের বাসভবনের সামনে দাঁড়িয়ে শুক্রবার বোলসোনেরো বলেছেন,‘এই লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিও চমৎকার মানুষ, তাই না? তিনি আমাজন জ্বালিয়ে দিতে অর্থ দিয়েছিলেন’।

ডি ক্যাপ্রিও এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, তিনি ডব্লিউডব্লিউএফকে চাঁদা দেননি।

এই হলিউড তারকা বলেন, ‘ব্রাজিলের জনগণ তাদের প্রাকৃতিক ও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য রক্ষায় কাজ করছে। সহযোগিতা করার মতো অর্থ থাকলেও আমরা তাদেরকে (ডব্লিউডব্লিউএফ) চাঁদা দিইনি’।

জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় আন্তর্জাতিক অঙ্গনে খোলামেলা কথা বলেছেন ডি ক্যাপ্রিও। আমাজনের বনাঞ্চলে আগুনসহ বিভিন্ন পরিবেশ বিষয়ক ইস্যুতে তিনি বিশ্ব নেতাদের ভূমিকার কঠোর সমালোচনা করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

18 − 2 =

Translate »