বান্দরবানে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ রোহিঙ্গা নিহত

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্যদের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই রোহিঙ্গা নিহত হয়েছেন। বিজিবি বলছে, নিহত দুইজন ইয়াবা পাচারকারী ছিলেন।

নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম সীমান্তের কাছাকাছি চাম্পান্যাকাটা এলাকার একটি পাহাড়ে শনিবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। রোববার দুপুরে বিজিবির পক্ষ থেকে এই তথ্য জানানো হয়।

নিহতেরা হলেন-মো. ইয়াছিন (৩০) ও হোসেন আলী (২০)। তারা কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবিরের বাসিন্দা ছিলেন।

বিজিবি জানিয়েছে, দুইজনের কাছ থেকে ২০ হাজার করে মোট ৪০ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট ও একটি শুটারগান পাওয়া গেছে।

বিজিবির কক্সবাজার ব্যাটালিয়নের কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কর্নেল আলী হায়দার আযাদ জানান, ইয়াবা চোরাচালানিদের ১০ থেকে ১২ জনের একটি সশস্ত্র দল ইয়াবা নিয়ে আসবে বলে তথ্য পাওয়া যায়। বিজিবির একটি দল চাম্পান্যাকাটা পাহাড়ে ওঁৎ পেতে থাকে। রাতে চোরাচালানি দলটি ঘুমধুম বাজারের পেছন দিয়ে আসার সময় বিজিবির সদস্যরা চ্যালেঞ্জ করলে তারা গুলি ছোড়ে। বিজিবিও পাল্টা গুলি ছোড়ে। একপর্যায়ে চোরাচালানি দলটি পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালিয়ে দুইজনকে আহত অবস্থায় পাওয়া যায়। আহতদের উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নেওয়ার পর সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়।

বিজিবির এই কর্মকর্তা জানান, ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ দু’টি নাইক্ষ্যংছড়ি পুলিশের কাছে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে। এ ঘটনায় মামলা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 − 9 =

Translate »