পেঁয়াজ ছাড়া যেভাবে সুস্বাদু খাবার রান্না করা যায়

বাংলাদেশে এখন ২২০ টাকারও বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ। পেঁয়াজের ঝাঁজে বাজার এখন অস্থির। ইতিমধ্যে সরকার পেঁয়াজের দাম কমার আশ্বাস দিলেও তার সুফল মেলেনি। প্রতিবেশী দেশ ভারত পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দেয়ায় ঊর্ধ্বমুখী পেঁয়াজের বাজার। তাই এখন অনেকেই রান্নায় পেঁয়াজের ব্যবহার কমিয়ে দিয়েছেন। খবর বিবিসি বাংলার।

তবে এখন প্রশ্ন হলো- পেঁয়াজ যদি চাল-ডালের মতো অত্যাবশ্যকীয় খাবার না হয়, তবে পেঁয়াজ বাদ দিয়ে কি প্রতিদিনের রান্না চলে না?
ইউটিউবে খুবই জনপ্রিয় একটি রান্নার চ্যানেল পরিচালনা করেন রুমানা আজাদ। পেঁয়াজ ছাড়া সুস্বাদু খাবার রান্না করা যায়, এ বিষয়ে জানতে চাইলে রুমানা আজাদ বলেন, আগে থেকেই মা-খালাদের রান্না দেখে আমাদের অনেক ধারণা পেঁয়াজ ছাড়া রান্না করা যায় না। বিশেষভাবে মাংস ও মাছ। আদা, রসুন হয়তো বাদ দেয়া চলে, কিন্তু পেঁয়াজ থাকতেই হবে- পেঁয়াজ ছাড়া রান্নাই হবে না।

পেঁয়াজের প্রতি গৃহিণী আর রসনাবিলাসীদের এত পক্ষপাতিত্বের কারণ তার বিশেষ স্বাদ এবং গ্রেভি বা ঝোল তৈরিতে পেঁয়াজের বিশেষত্ব। এ ছাড়া কাঁচামাংস কিংবা মাছের মধ্যে পেঁয়াজের রস ঢুকে তার স্বাদকে আরও বাড়িয়ে দেয় বলেই পেঁয়াজের এত কদর।

তবে পুষ্টিবিজ্ঞানীরা বলছেন, বাঙালি রান্নায় সাধারণত যে উচ্চ তাপমাত্রা ব্যবহার করা হয়, তাতে পেঁয়াজের পুষ্টিগুণ নষ্ট হয়ে যায়। রুমানা আজাদ বলেন, আমার ইউটিউব চ্যানেলের জন্য বেশ কিছু ডিশ তৈরি করেছি- কোনোরকম পেঁয়াজ ব্যবহার না করে। তিনি বলেন, কিন্তু সেই ডিশের স্বাদ কোনো অংশেই কম নয়।

আসুন জেনে নেই রান্নায় পেঁয়াজের বিকল্প কী হতে পারে-

১. পেঁয়াজ ব্যবহার না করে রসুনের ব্যবহারের দিকে একটু জোর দিতে হবে। গরম তেলে রসুন ও শুকনা মরিচের ফোঁড়ন দারুণ সুবাস তৈরি করে। ডাল কিংবা বিভিন্ন ধরনের ভাজি এভাবেই তৈরি করা যাবে।

২. পেঁয়াজের বদলে স্প্রিং অনিয়ন কিংবা পেঁয়াজ কলি রান্নায় ব্যবহার করলে তরকারিতে পেঁয়াজের স্বাদ ও গন্ধ পাওয়া যাবে।

৩. সয়াবিন তেলে রান্না না করে অলিভ অয়েল ব্যবহারকরতে পারেন। এই তেল খাবারে স্বাদ বাড়াবে।

৪. পেঁয়াজের বদলে বেল পেপার কিংবা ক্যাপসিকাম ব্যবহার করতে পারেন। ক্যাপসিকাম খাবারের স্বাদ বাড়াবে। ভাজি, মাছ বা মাংসের ঝোলে ক্যাপসিকামের ঝাঁঝালো স্বাদ ও গন্ধ কিন্তু দারুণ।

৫. মাংস কিংবা মাছের ঝোল ঘন করতে পেঁয়াজের বদলে পরিমাণমতো পেঁপে বাটা ব্যবহার করতে পারেন। এতে মাছ-মাংসের আঁশটে গন্ধ দূর হবে ও ঝোলও ঘন হবে।

৬. রান্নায় টমেটো বাটার ব্যবহার খুব সহজেই যেকোন খাবারকে সুস্বাদু করে তুলবে। যেকোন ধরনের খাবার রান্নাতেই টমেটো মানিয়ে যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × 5 =

Translate »